২৩ জানুয়ারি ২০২১
`

ডিসেম্বর মাসে থিম্ফু-ঢাকা পিটিএ স্বাক্ষরিত হবে : প্রধানমন্ত্রীকে ভুটানের রাষ্ট্রদূত

ডিসেম্বর মাসে থিম্ফু-ঢাকা পিটিএ স্বাক্ষরিত হবে : প্রধানমন্ত্রীকে ভুটানের রাষ্ট্রদূত - ছবি - সংগৃহীত

বাংলাদেশ ও ভুটানের মধ্যে ব্যবসা ও বাণিজ্য বৃদ্ধির লক্ষ্যে ডিসেম্বরে প্রতিবেশী দেশদুটির মধ্যে প্রিফেরেন্টিয়াল ট্রেড এগ্রিমেন্ট (পিটিএ) চুক্তি স্বাক্ষরিত হবে। বাংলাদেশে ভুটানের নব নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত রিনচেন কুয়েন্টসিল আজ বলেছেন, ‘পিটিএ’র সকল প্রয়োজনীয় প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে এবং আগামী মাসে এটি স্বাক্ষরিত হবে।’ ভুটানের রাষ্ট্রদূত আজ সকালে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি কার্যালয় গণভবনে তাঁর সঙ্গে এক সৌজন্য সাক্ষাত করতে গেলে এ বিষয়টি অবগত করেন।

বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।

বাংলাদেশী তৈরি পোশাক ভুটানে খুব জনপ্রিয় উল্লেখ করে রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘বাংলাদেশ শুরু আমাদের বন্ধুই নয়, আমাদের ব্যবসায়ী অংশীদারও।’ রিনচেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, তাঁর নেতৃত্বে বাংলাদেশের অর্থনীতি শক্তিশালী হচ্ছে। তিনি ভুটানের আর্থসামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি মানব সম্পদ উন্নয়নে বাংলাদেশের অবদানের প্রশংসা করেন।

রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশে বিপুল সংখ্যক ভুটানী শিক্ষার্থী বিশেষত মেডিক্যাল শিক্ষার্থী অধ্যয়ণ করছে।

ভুটানকে একটি বন্ধুত্বপূর্ণ প্রতিবেশী দেশ হিসেবে উল্লেখ করে বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী বলেন, ১৯৭১ সালে স্বাধীন দেশ হিসেবে বাংলাদেশকে স্বীকৃতিদানকারী প্রথম দেশ ভুটান। তিনি তাঁর ভুটান সফরের কথা উল্লেখ করে আরো বলেন, দু’দেশের মধ্যে ‘চমৎকার সম্পর্ক’ বিদ্যমান রয়েছে।

দু’দেশের মধ্যে বিভিন্ন ক্ষেত্রে সহযোগিতার কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা আশা প্রকাশ করেন যে আগামী দিনগুলোতে এই সহযোগিতা অব্যহত থাকবে। তিনি বলেন, ভুটান দ্বিপক্ষীয় স্বার্থে সৈয়দপুর বিমানবন্দরসহ বাংলাদেশের বিমানবন্দরগুলোর পাশাপাশি চট্টগ্রাম ও মংলার মতো সমুদ্রবন্দরগুলোও ব্যবহার করতে পারে।

প্রেস সচিব বলেন, তাদের মধ্যে করোনাভাইরাস ইস্যুতেও আলোচনা হয়। রাষ্ট্রদূত প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করেন যে, ভুটানে এখন পর্যন্ত ৩৫৩ জন করোনায় আক্রান্ত হলেও কেউ মারা যায়নি।

শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশে প্রশাসন, সশস্ত্র বাহিনী, পুলিশ, বিজিবি’র পাশাপাশি তাঁর দলের নেতাকর্মীসহ সকল শ্রেণী ও পেশার মানুষ কোভিড-১৯ মোকাবেলায় একসাথে কাজ করছেন। তাঁর সরকার মানুষের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কৃষি খাতকে সর্বাধিক প্রাধান্য দিচ্ছে। এ সময় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র : বাসস



আরো সংবাদ