০২ জুন ২০২০

করোনা আক্রান্ত হওয়ায় বরিস জনসনকে প্রধানমন্ত্রীর চিঠি

করোনা আক্রান্ত হওয়ায় বরিস জনসনকে প্রধানমন্ত্রীর চিঠি - সংগৃহীত

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবরে দুঃখ প্রকাশ করে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে চিঠি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর সহকারী প্রেস সচিব এবিএম সারওয়ার-ই-আলম সরকার বলেন, চিঠিতে বরিস জনসনের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেন প্রধানমন্ত্রী।

চিঠিতে জনসনকে প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনভাইরাসের মহামারি ছড়িয়ে পড়া ও প্রাণহানির বিরুদ্ধে আমরা সবাই আমাদের নিজস্ব লড়াই এবং চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করছি। জনগণকে রক্ষা করতে আমি আইন এবং আর্থিক উদ্দীপনাসহ আপনার সব সময়োপযোগী এবং গতিশীল নেতৃত্বের উদ্যোগগুলো ঘনিষ্ঠভাবে অনুসরণ করছি।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ এ চ্যালেঞ্জ কাটিয়ে উঠতে এবং পারস্পরিক সাফল্যের সংকল্প নিয়ে বিদ্যমান সহযোগিতার মাধ্যমে যুক্তরাজ্যের সাথে সর্বদা কাজ করতে প্রস্তুত রয়েছে। এ সংক্রমণের শুরু থেকেই বিশ্বব্যাপী প্রাদুর্ভাব সম্পর্কে বাংলাদেশ অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে কাজ করছে।

তিনি লিখেন, আমরা জানুয়ারি থেকে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলো থেকে আগত যাত্রীদের জন্য কোয়ারেন্টাইনের ব্যবস্থা করার পাশাপাশি বিমানবন্দরে সন্দেহভাজনদের স্ক্রিনিং শুরু করি। এছাড়া করোনাভাইরাসের বিস্তার এবং চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় বিভিন্ন সংমিশ্রনের টাস্কফোর্সসহ একটি উচ্চ-শক্তিমান জাতীয় কমিটি গঠন করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকার নির্ধারিত হাসপাতাল এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা দিয়ে প্রস্তুত করেছে। সংক্রমণ রোধে সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করা, সংক্রমণজনিত অঞ্চলগুলোকে লকডাউন করা এবং জনগণকে ঘরে থাকার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

চিঠিতে প্রধানমন্ত্রী লিখেন, ‘আমরা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দীর্ঘলালিত জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন সম্পর্কিত সকল জনসমাগম স্থগিত করেছি। এছাড়া ভাইরাসের বিস্তার রোধে রাষ্ট্রীয় এবং বেসরকারি সকল অনুষ্ঠান বাতিল করে দিয়েছি। এ মাসের ২৫ তারিখ থেকে ১০ দিনের জন্য জরুরি পরিষেবা ছাড়া সকল কিছু বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।’

এ চ্যালেঞ্জ কাটিয়ে উঠতে পারস্পরিক প্রচেষ্টা এবং সফলতার সংকল্প নিয়ে বাংলাদেশ সরকার বিদ্যমান সহযোগিতার মাধ্যমে যুক্তরাজ্য সরকারের সাথে সর্বদা প্রস্তুত থাকবে বলে তিনি চিঠিতে পুনরায় উল্লেখ করেন। সূত্র: ইউএনবি


আরো সংবাদ