০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৯ মাঘ ১৪২৯, ১০ রজব ১৪৪৪
ads
`

বিশ্বসাহিত্যের টুকিটাকি

প্রথম উপন্যাসেই অলিভিয়ার সাফল্য
-

জাম্বিয়ান বংশোদ্ভূত জার্মান লেখিকা অলিভিয়া ওয়েনজেল তার প্রথম উপন্যাসেই সাড়া ফেলে দিয়েছেন। বইটির নাম ‘ ১০০০ কয়েলস অব ফিয়ার’ । এই বইয়ের মাধ্যমে জার্মানির বর্ণবাদের চিত্র বিশ^বাসীর কাছে তুলে ধরেছেন তিনি। সাদাসিধে দৃষ্টিতে দেখলে মনে হবে তিনি একটি পরাবাস্তব চিত্র এঁকেছেন। কিন্তু বইটির ভেতরে কঠিন বাস্তবতার ছোঁয়া আছে। বইটির প্রধান চরিত্র একজন অজ্ঞাতনামা কথক। তিনি একাধিক প্রশ্ন ও উত্তরের মধ্য দিয়ে যান। তার পরকীয়ার অনুভূতি যেমন জানা হয়। তার বন্ধু-প্রেমিকা কিমের সাথে একটি থিয়েটারে তারা আবিষ্কার করে যে এক হাজার মানুষের মধ্যে তারাই একমাত্র অশে^তাঙ্গ। উপন্যাসের ঘটনাস্থল জার্মানি ও নিউ ইয়র্ক। নিউ ইয়র্কে ২০১৬ সালের আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের রাতে একজন অপরিচিত ব্যক্তির সাথে কথক যৌন সম্পর্ক করছে এবং ডোনাল্ড ট্রাম্পের অসম্ভব বিজয় সম্পর্কে জার্মানিতে তার বন্ধুদের কাছ থেকে আতঙ্কিত টেক্সট পেয়ে সে ঘুম থেকে জেগে উঠেছে। যখন কথকের বয়স ১৯ তখন তার যমজ ভাই আত্মহত্যা করে। তার মৃত্যু বর্ণনা করতে সে যে চেতনার ধারা ব্যবহার করে তা হৃদয়বিদারক। এভাবেই কাহিনী এগিয়ে যায়। এর কাহিনীর আরেক প্রধান চরিত্র একজন কৃষ্ণাঙ্গ তরুণী, যিনি লেখিকার মতো ১৯৮০-র দশকের শেষের দিকে পূূর্ব জার্মানিতে জন্মগ্রহণ করেন, প্রতিদিনের বর্ণবাদের সাথে বেড়ে ওঠেন। এটিতে আত্মজীবনীমূলক উপাদান রয়েছে বলে বলা হয়েছে। ওয়েনজেল উপন্যাসটিকে ‘অটোফিকশন’ (অটোবায়োগ্রাফি+ফিকশন) হিসেবে শ্রেণীবদ্ধ করেছেন। ১০০০ কয়েলস অব ফিয়ার ইংরেজিতে অনুবাদ করেন প্রিসিলা লেইন। অলিভিয়ার জন্ম ১৯৮৫ সালে। তিনি নাট্যকার, সঙ্গীতজ্ঞ এবং অভিনয়শিল্পী হিসেবেও খ্যাতিমান। তার মা পূূর্ব জার্মানির একজন শ্বেতাঙ্গ নারী আর বাবা জাম্বিয়ার একজন কালো মানুষ। সাহিত্যকর্মের পাশাপাশি তিনি সঙ্গীতেও নিজেকে নিয়োজিত করেন। ২০২০ সালে তার প্রথম উপন্যাস ‘১০০০ সার্পেন্টিনেন অ্যাংস্ট’ নামে জার্মান ভাষায় বের হয়। উপন্যাসটি জার্মান ফিউইলেটন দ্বারা প্রশংসিত হয়েছিল এবং ২০২০ সালে জার্মান বুক প্রাইজের লংলিস্টে স্থান করে নেয়। একই বছর ওয়েনজেল নাদিন স্নাইডার (ড্রেই কিলোমিটার) এর সাথে একযোগে সেরা জার্মান ভাষার প্রথম উপন্যাসের জন্য ফুলদা শহরের সাহিত্য পুরস্কার পান। জুরির মতে, বইটিতে ‘চলমান বৈষম্যের পরিণতি নিয়ে এমনভাবে কাজ করা হয়েছে, যা সমসাময়িক জার্মান ভাষার সাহিত্যে ছিল না’।


আরো সংবাদ


premium cement