০৫ আগস্ট ২০২০

বিশ্বসাহিত্যের টুকিটাকি

-
24tkt

উজবেক লেখক হামিদ ইসমাইলভের বেস্ট সেলার বই
উজবেকিস্তানের লেখক হামিদ ইসমাইলভ তার নিজ দেশে, রাশিয়ায় ও কিরঘিজস্তানে সমানভাবে জনপ্রিয়। তিনি পেশায় সাংবাদিক, বিবিসি ওয়ার্ল্ড সার্ভিসের সাথে যুক্ত ছিলেন। তার জন্ম কিরঘিজস্তানে ১৯৫৪ সালে। বুঝতেই পারছেন, মধ্য এশিয়ার বর্তমান স্বাধীন প্রজাতন্ত্রগুলো রাশিয়া ইউক্রেনের সাথে সোভিয়েত ইউনিয়নের সাথে যুক্ত ছিল। সোভিয়েত ভেঙে উজবেকিস্তান স্বাধীন হওয়ার পরও দেশটিতে কার্যত আগের মতো একনায়তান্ত্রিক মনোভাব থেকে গিয়েছেল। স্বাধীনভাবে মতামত ব্যক্ত করায় নিজ দেশে তার বই নিষিদ্ধ ছিল। কিন্তু তিনি দমে যাননি। ১৯৯২ সালে তিনি পাড়ি জমান ব্রিটেনে। তার কয়েকটি জনপ্রিয় উপন্যাসের মধ্যে রয়েছে ‘দ্য ডেড লেক’। এটিসহ তার বেশ কিছু বই ইংরেজি, ইংরেজি, রুশ, ফরাসি ও তুর্কিসহ কয়েকটি ভাষায় অনূদিত হয়েছে। ডেড লেক কোল্ড ওয়ারের সময়ের কাহিনী নিয়ে লেখা। এটাকে বলা হয়ে ‘হন্টিং রাশিয়ান টেল’ অর্থাৎ রুশ ভৌতিক কাহিনী। ইয়ারঝান এ উপন্যাসের কেন্দ্রীয় চরিত্র। সে বড় হয়েছে কিরঘিজস্তানের প্রত্যন্ত এলাকায়, যেখানে সোভিয়েত আমলে পারমাণবিক পরীক্ষা চালানো হতো। ইয়ারজান এক সময়ে প্রতিবেশী এক কিশোরীর প্রেমে পড়ে। তাকে খুশি করতে একদিন সে নিষিদ্ধ এক লেকে ঝাঁপ দেয়। লেকের তেজস্ক্রিয় পানি বদলে দেয় ইয়ারজানকে। সে আর স্বাভাবিক হতে পারেনি। এই উপন্যাস মানুষের তৈরি বিপর্যয় মানব জীবনে কী ভয়াবহ ক্ষতি ডেকে আনতে পারে তারই উদাহরণ। ২০১৪ সালে এর ইংরেজি অনুবাদ প্রকাশিত হয়।

কায়রোয় এডওয়ার্ড সাঈদ স্মারক বক্তৃতায় তার ছেলে ওয়াদী
ফিলিস্তিনি বংশোদ্ভূত মার্কিন লেখক ও চিন্তাবিদ দাশনিক এডওয়ার্ড সাঈদের বইয়ের জনপ্রিয়তা বিশ^জুড়ে। তার কয়েকটি বই বেস্ট সেলার হয়েছে। তার শ্রেষ্ঠ বই ‘ওরিয়েন্টালিজম’। তিনি কয়েকটি উপন্যাস ও সমালোচনামূলক বইও লিখেছেন। তার জন্ম ১ নভেম্বর ১৯৩৫, মৃত্যু ২৪ সেপ্টেম্বর ২০০৩। তার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে প্রতি বছর মিসরের কায়রোয় আমেরিকান ইউনিভার্সিটি ইন কায়রোর উদ্যোগে এডওয়ার্ড সাঈদ স্মারক বক্তৃতা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। গত ২ নভেম্বর বিশ^বিদ্যালয়ের তাহরির ক্যাম্পাসের ওরিয়েন্টাল হলে হয়ে গেল এই বক্তৃতা। আর এ বছর এই স্মারক বক্তৃতা দেন সাঈদের ছেলে ওয়াদী সাঈদ। ফলে এবারের অনুষ্ঠান ভিন্নমাত্রা লাভ করে। ওয়াদী তার ভাষণে তার পিতার বিভিন্ন বইয়ের সারমর্ম উপস্থাপনা করে এসব বক্তব্যের যথার্থতাই নতুন করে তুলে ধরেছেন। তিনি বলতে চেয়েছেন, তার পিতার মধ্যপ্রাচ্য ভাবনার সাথে তারও মিল রয়েছে আর এগুলো বলতে গেলে চিরন্তন। মধ্যপ্রাচ্য সঙ্কট উত্তরণে এর কোনো বিকল্প নেই। ওয়াদী আমেরিকার সাউথ ক্যারোলিনা ইউনিভার্সিটির আইন বিভাগের অধ্যাপক। তিনি আমেরিকান ল ইনস্টিটিউটের একজন নির্বাচিত সদস্য এবং আরেরেশিয়া জার্নালের বোর্ড অব এডিটর্সের সদস্য।

 


আরো সংবাদ

হিজবুল্লাহর জালে আটকা পড়েছে ইসরাইল! (৪১৪১০)আবারো তাইওয়ান দখলের ঘোষণা দিল চীন (১৮৪৬৬)মরুভূমির ‘এয়ারলাইনের গোরস্তানে’ ফেলা হচ্ছে বহু বিমান (১২৮০৯)সিনহা নিহতের ঘটনায় পুলিশ ও ডিজিএফআই’র পরস্পরবিরোধী ভাষ্য (১০৫০৫)হামলায় মার্কিন রণতরীর ডামি ধ্বংস না হওয়ার কারণ জানালো ইরান (৯০১০)সহকর্মীর এলোপাথাড়ি গুলিতে ২ বিএসএফ সেনা নিহত, সীমান্তে উত্তেজনা (৮০৭০)পাকিস্তানের নতুন মানচিত্রে পুরো কাশ্মির, যা বলছে ভারত (৭৫৪১)বিবাহিত জীবনের বেশিরভাগ সময় জেলে এবং পালিয়ে থাকতে হয়েছে বাবুকে : ফখরুল (৭৫০৩)ভয়াবহ বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল লেবাননের রাজধানী (৭২৫৫)চীনের বিরুদ্ধে গোর্খা সৈন্যদের ব্যবহার করছে ভারত : এখন কী করবে নেপাল? (৭০৭১)