১৬ জানুয়ারি ২০২২, ০২ মাঘ ১৪২৮, ১২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩
`

সেনাবাহিনীতে সেনা শিক্ষা কোরে জুনিয়র কমিশন্ড অফিসার নিয়োগ

-

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে সেনা শিক্ষা কোরে জুনিয়র কমিশন্ড অফিসার (ওয়ারেন্ট অফিসার) হিসেবে সরাসরি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহী বাংলাদেশী পুরুষ নাগরিকদের কাছ থেকে দরখাস্ত আহ্বান করা হয়েছে।
অনলাইনে আবেদনের শেষ তারিখ : ১০ নভেম্বর ২০১৯। লিখেছেন মাহমুদ কবীর

আবেদনের যোগ্যতা : প্র্রার্থীকে বিএ/ বিএসসি/ বিকম/স্নাতক/সমমান (শিক্ষা প্রশিক্ষণে ডিগ্রি/ ডিপ্লোমা ও শিক্ষকতার অভিজ্ঞতা অতিরিক্ত যোগ্যতা বলে বিবেচিত হবে) পাস হতে হবে। স্নাতক অথবা সমমান পরীক্ষায় ন্যূনতম সিজিপিএ ২ এবং এসএসসি ও এইচএসসি অথবা সমমান পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ ৩ থাকতে হবে।
বয়সসীমা : ২ ফেব্রুয়ারি ২০২০ তারিখে সর্বনিম্ন ২০ বছর ও সর্বোচ্চ ২৮ বছর। বয়সের ক্ষেত্রে এফিডেভিট গ্রহণযোগ্য হবে না।
শারীরিক যোগ্যতা : প্রার্থীর উচ্চতা ন্যূনতম ১.৬৮ মিটার অথবা ৫ ফুট ৬ ইঞ্চি এবং ওজন ৪৯.৯০ কেজি বা ১১০ পাউন্ড হতে হবে। বুকের মাপ স্বাভাবিক অবস্থায় ০.৭৬ মিটার অথবা ৩০ ইঞ্চি এবং সম্প্রসারিত অবস্থায় ০.৮১ মিটার অথবা ৩২ ইঞ্চি হতে হবে।
বৈবাহিক অবস্থা : অবিবাহিত হতে হবে।
স্বাস্থ্য পরীক্ষা : স্বাস্থ্য পরীক্ষায় যোগ্য।
সাঁতার : সাঁতার জানা আবশ্যক (ন্যূনতম ৫০ মিটার)।
অযোগ্যতা : সরকারি চাকরি থেকে বরখাস্তকৃত, ফৌজদারি মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত ও শিক্ষাগত বিফলতা ছাড়া অন্য কোনো কারণে কোনো সামরিক প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান থেকে প্রত্যাহারকৃতরা আবেদনের যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন না।
অনলাইনে আবেদন-প্রক্রিয়া : প্রার্থীদের আবেদন করতে হবে অনলাইনে। প্রার্থীদের আর্মি ওয়েবসাইটে যঃঃঢ়://ধৎসু.ঃবষবঃধষশ.পড়স.নফ-তে ব্রাউজ করে আবেদনপত্রের ফরম পূরণ করতে হবে। ফরম পূরণ করার পর প্রার্থীকে টেলিটকের প্রি-পেইড মোবাইল থেকে ওয়েবসাইটের ওঘঝঞজটঈঞওঙঘ-এ বর্ণিত পদ্ধতি অনুযায়ী ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস করে আবেদন ফি বাবদ ৫০০ টাকা জমা দিতে হবে। আবেদন ফি জমা দেয়ার পর আবেদনপত্র কোনোভাবেই পরিবর্তন করা যাবে না। আবেদন ফি জমা দেয়ার পর প্রাপ্ত ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড দিয়ে ওই ওয়েবসাইটে লগইন করতে হবে। সফলভাবে লগইন করার পর প্রার্থী প্রাথমিক নির্বাচনী পরীক্ষার জন্য একটি প্রবেশপত্র ডাউনলোড করে প্রিন্ট করতে হবে।
প্রাথমিক নির্বাচনী পর্ষদের কাছে যেসব কাগজপত্র জমা দিতে হবে : অনলাইনে পূরণ করা আবেদনপত্রের কপি, গেজেটেড অফিসার কর্তৃক সত্যায়িত আট কপি পাসপোর্ট সাইজের এবং ছয় কপি স্ট্যাম্প সাইজের রঙিন ছবি, গেজেটেড অফিসার কর্তৃক শিক্ষাগত যোগ্যতার সত্যায়িত সনদপত্র ও মার্কশিটের ফটোকপি, স্মার্টকার্ড/ জাতীয় পরিচয়পত্রের (নিজ, পিতা ও মাতা) সত্যায়িত ফটোকপি ও প্র্রাথমিক নির্বাচনী পরীক্ষার প্র্রবেশপত্র ইত্যাদি কাগজপত্র জমা দিতে হবে।
প্রশিক্ষণ : ১২ সপ্তাহের মৌলিক সামরিক প্রশিক্ষণ এবং ১৯ সপ্তাহের বেসিক কোর্স গ্রহণ করতে হবে।
জেনে রাখুন : প্রার্থীরা তাদের অনলাইনে পূরণকৃত আবেদনপত্র ও অন্যান্য কাগজপত্র প্রাথমিক নির্বাচনী পর্ষদের কাছে হস্তান্তর করবেন। প্রাথমিক নির্বাচনী পরীক্ষার ফলাফল একই দিনে প্রার্থীদের জানিয়ে দেয়া হবে। প্রাথমিক নির্বাচনী পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের নির্বাচনী পর্ষদের কাছ থেকে পর্ষদ সভাপতির স্বাক্ষরসংবলিত লিখিত পরীক্ষার প্রবেশপত্র সংগ্রহ করতে হবে। ওই প্রবেশপত্র ছাড়া কেউ লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন না।
লিখিত পরীক্ষা ও পরীক্ষার স্থান : প্রাথমিক নির্বাচনী পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের আগামী ৬ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার সকাল ৯টায় বাংলা, ইংরেজি, গণিত ও সাধারণ জ্ঞান বিষয়ে লিখিত পরীক্ষার জন্য শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজ, ঢাকা সেনানিবাসে উপস্থিত হতে হবে। প্রার্থীদের পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে (সকাল ৮টা ৩০ মিনিটে) পরীক্ষা কেন্দ্রে উপস্থিত হতে হবে। লিখিত পরীক্ষার কেন্দ্রে কোনো প্রকার মোবাইল ফোন নিয়ে আসা যাবে না। লিখিত পরীক্ষার জন্য প্রার্থীদের কলম, পেনসিল, ক্যালকুলেটর, জ্যামিতি বক্স সাথে আনতে হবে।
প্রার্থীদের প্রাথমিক নির্বাচনী পরীক্ষা : প্রার্থীদের প্রাথমিক নির্বাচনী পরীক্ষার (প্রাথমিক মেডিক্যাল এবং মৌখিক পরীক্ষা) জন্য অনলাইনে পূরণ করা আবেদনপত্রসহ এলাকাভিত্তিক নিজ নিজ জেলার পাশে নিচে বর্ণিত নির্বাচনী পর্ষদ/ এরিয়া সদর দফতরসমূহের (সেনানিবাস) সামনে উল্লিখিত তারিখে সকাল ৮টায় উপস্থিত হতে হবে।
এরিয়া সদর দফতর বগুড়া, বগুড়া সেনানিবাস : ১৭-১৮ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে বগুড়া, জয়পুরহাট, সিরাজগঞ্জ জেলার প্র্রার্থীদের। ১৯-২০ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে পাবনা, নাটোর, নওগাঁ জেলার প্র্রার্থীদের। ২১ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও রাজশাহী জেলার প্র্রার্থীদের এরিয়া সদর দফতর বগুড়া, বগুড়া সেনানিবাসে উপস্থিত হতে হবে।
এরিয়া সদর দফতর ঘাটাইল, শহীদ সালাহউদ্দিন সেনানিবাস : ১৭-১৮ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে জামালপুর ও শেরপুর জেলার প্র্রার্থীদের। ১৯-২০ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে ময়মনসিংহ ও কিশোরগঞ্জ জেলার প্র্রার্থীদের। ২১ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে নেত্রকোনা ও টাঙ্গাইল জেলার প্র্রার্থীদের এরিয়া সদর দফতর ঘাটাইল, শহীদ সালাহউদ্দিন সেনানিবাসে উপস্থিত হতে হবে।
এরিয়া সদর দফতর চট্টগ্রাম, চট্টগ্রাম সেনানিবাস : ১৭-১৮ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে চট্টগ্রাম, খাগড়াছড়ি ও রাঙ্গামাটি জেলার প্র্রার্থীদের। ১৯-২০ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে বান্দরবান ও কক্সবাজার জেলার প্র্রার্থীদের এরিয়া সদর দফতর চট্টগ্রাম, চট্টগ্রাম সেনানিবাসে উপস্থিত হতে হবে ।
এরিয়া সদর দফতর কুমিল্লা, কুমিল্লা সেনানিবাস : ১৭-১৮ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে সিলেট, সুনামগঞ্জ, মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ জেলার প্র্রার্থীদের। ১৯-২০ নভেম্বর ২০১৯ কুমিল্লা, চাঁদপুর, বি. বাড়িয়া জেলার প্র্রার্থীদের। ২১ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে লক্ষ্মীপুর, নোয়াখালী ও ফেনী জেলার প্র্রার্থীদের এরিয়া সদর দফতর কুমিল্লা, কুমিল্লা সেনানিবাসে উপস্থিত হতে হবে।
এরিয়া সদর দফতর যশোর, যশোর সেনানিবাস : ১৭-১৮ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে কুষ্টিয়া, মেহেরপুর, চুয়াডাঙ্গা, ঝিনাইদহ, মাগুরা, নড়াইল ও যশোর জেলার প্র্রার্থীদের। ১৯-২০ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট, বরগুনা, পটুয়াখালী, ভোলা ও বরিশাল জেলার প্র্রার্থীদের। ২১ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে ঝালকাঠি, গোপালগঞ্জ, মাদারীপুর, শরীয়তপুর, ফরিদপুর ও পিরোজপুর জেলার প্র্রার্থীদের এরিয়া সদর দফতর যশোর, যশোর সেনানিবাসে উপস্থিত হতে হবে।
এরিয়া সদর দফতর রংপুর, রংপুর সেনানিবাস : ১৭-১৮ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড় ও নীলফামারী জেলার প্র্রার্থীদের। ১৯-২০ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে দিনাজপুর ও রংপুর জেলার প্র্রার্থীদের। ২১ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে লালমনিরহাট, কুড়িগ্রাম ও গাইবান্ধা জেলার প্র্রার্থীদের এরিয়া সদর দফতর রংপুর, রংপুর সেনানিবাসে উপস্থিত হতে হবে।
সদর দফতর লজিস্টিকস এরিয়া, ঢাকা সেনানিবাস : ১৭-১৮ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে ঢাকা ও মানিকগঞ্জ জেলার প্র্রার্থীদের। ১৯-২০ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে নারায়ণগঞ্জ, মুন্সীগঞ্জ ও রাজবাড়ী জেলার প্র্রার্থীদের। ২১ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে গাজীপুর ও নরসিংদী জেলার প্র্রার্থীদের সদর দফতর লজিস্টিকস এরিয়া, ঢাকা সেনানিবাসে উপস্থিত হতে হবে।
ফলাফল প্রকাশ : লিখিত পরীক্ষার ফলাফল আগামী ২৩ ডিসেম্বর ২০১৯ তারিখে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ওয়েবসাইটে (যঃঃঢ়// িি.িধৎসু. সরষ.নফ) প্র্রকাশ করা হবে। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্র্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষা ও চূড়ান্ত ডাক্তারি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে। লিখিত পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের সময় এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানিয়ে দেয়া হবে।
সুবিধাদি : নিয়োগপ্রাপ্তরা নির্ধারিত স্কেলে বেতনভাতা, পেনশনসহ বিনামূল্যে আহার, বাসস্থান, বিনামূল্যে সরকারি পোশাক-পরিচ্ছদ, পরিবারবর্গের জন্য বিনামূল্যে চিকিৎসা, ভর্তুকি মূল্যে রেশন, সেনাবাহিনীর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সন্তানদের লেখাপড়ার সুযোগ পাবেন।
যোগাযোগ : পরিচালক, পার্সোনেল অ্যাডমিনিস্ট্রেশন পরিদফতর, অ্যাডজুটেন্ট জেনারেল শাখা, সেনাবাহিনী সদর দফতর, ঢাকা সেনানিবাস।


আরো সংবাদ


premium cement