১৮ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১, ১১ মহররম ১৪৪৬
`

গাজীপুরে মুক্তিপণের দাবিতে শিশু অপহরণ, ৩ দিন পর লাশ উদ্ধার

নিহত সানজিদুল হক তামিম - ছবি : নয়া দিগন্ত

গাজীপুরে মুক্তিপণের দাবিতে অপহরণের তিন দিন পর মাদরাসাছাত্র এক শিশুর অর্ধগলিত লাশ বাড়ির পাশের কলা বাগানের ঝোপ থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বুধবার (১০ জুলাই) দুপুরে মহানগরীর কোনবাড়ি থানাধীন আমবাগ এলাকা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

নিহতের নাম সানজিদুল হক তামিম (৬)। সে ময়মনসিংহের ফুলপুর থানার মাটিচাপুর গ্রামের নাজমুল হকের ছেলে এবং স্থানীয় একটি মাদরাসার ছাত্র ছিল।

এলাকাবাসী ও নিহতের স্বজনরা জানান, গাজীপুরের আমবাগ এলাকায় জনৈক রফিকুল ইসলামের বাড়িতে ভাড়ায় বসবাস করেন জুটের ব্যবসা করেন নাজমুল হক। তার ছেলে সানজিদুল হক তামিম (৬) স্থানীয় একটি মাদরাসার ছাত্র। গত রোববার (৭ জুলাই) বিকেল বাসা থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হয় সে। স্বজনরা বিভিন্নস্থানে খোঁজাখুঁজি করে তার সন্ধান না পেয়ে থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। শিশুটি নিখোঁজের একদিন পর অপরিচিত একটি মোবাইল নম্বর থেকে অজ্ঞাত ব্যাক্তি ফোন করে তামিমকে অপহরণের কথা জানিয়ে মুক্তিপণ হিসেবে ১০ লাখ টাকা দাবি করে তার পরিবারের কাছে। পরে অপহরণকারীর দেয়া তথ্যমতে স্বজনরা টাকা নিয়ে ময়মনসিংহের বিভিন্নস্থানে যায়। কিন্তু অপহরণকারীর মোবাইল বন্ধ পেয়ে ফিরে আসেন শিশুটির স্বজনরা।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোনাবাড়ি থানার ওসি কে এম আশরাফ উদ্দিন জানান, বুধবার দুপুরে আমবাগ এলাকার ভাড়া বাড়ির পাশে একটি কলাবাগানের ঝোপে তামিমের অর্ধগলিত লাশ দেখতে পায় স্থানীয়রা। খবর পেয়ে পুলিশ শিশুটির লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। শিশুর লাশটিতে পঁচন ধরে ফুলে ফেঁপে গেছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে শ্বাসরোধ করে শিশুটিকে হত্যার পর লাশ ওইস্থানে ফেলে গেছে হত্যাকারীরা।

ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে হত্যার প্রকৃত কারণ জানা যাবে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।


আরো সংবাদ



premium cement