০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৯ মাঘ ১৪২৯, ১০ রজব ১৪৪৪
ads
`

বুয়েট শিক্ষার্থী ফারদিনের শরীর ও মাথায় অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন


নিখোঁজের তিন দিন পর শীতলক্ষ্যা নদী থেকে উদ্ধার বুয়েট শিক্ষার্থী ফারদিন নূর পরশের শরীর ও মাথায় আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। তার ময়নাতদন্তের রিপোর্টে এমন তথ্য উঠে এসেছে। প্রাথমিকভাবে একে হত্যাকাণ্ড বলে ধারণা করা হচ্ছে।

আজ মঙ্গলবার সকালে নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করেন হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ফরহাদ হোসেন।

তিনি বলেন, ‘ফারদিনের মাথায় ও বুকে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। আমরা ধারণা করছি, তাকে হত্যা করা হয়েছে। আমরা তার ভিসেরা টেস্টের পর বিস্তারিত আরো জানতে পারব।’

রাজধানীর রামপুরা থেকে নিখোঁজের তিন দিন পর সোমবার সন্ধ্যায় ৬টার দিকে নারায়ণগঞ্জে শীতলক্ষ্যা নদী থেকে বুয়েটের ছাত্র ফারদিনের লাশ উদ্ধার করে নৌ পুলিশ। সিদ্ধিরগঞ্জ বনানী ঘাট এলাকা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

মৃত ফারদিন নূর পরশ (২৪) বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র ছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিবেটিং ক্লাবেরও যুগ্ম সম্পাদকও ছিলেন তিনি। ফারদিন পরিবারের সাথে ডেমরার কোনাপাড়া এলাকায় থাকতেন। তিন ভাইয়ের মধ্যে তিনি সবার বড় ছিলেন।


আরো সংবাদ


premium cement