১০ ডিসেম্বর ২০২২, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

ডেমরায় আবর্জনা অপসারণ করছে না পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা

ডেমরায় আবর্জনা অপসারণ করছে না পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা - ছবি : নয়া দিগন্ত

রাজধানীর ডেমরায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) ৬৭ নম্বর ওয়ার্ডের বাসা-বাড়ি ও মার্কেট থেকে গত এক সপ্তাহ ধরে পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা আবর্জনা অপসারণ করছে না বলে অভিযোগ উঠেছে। এতে বাসাবাড়িগুলো যেন ময়লার ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে।

এতে মারাত্মক ক্ষোভে ফুঁসছেন এলাকাবাসী। যেকোনো সময় আবর্জনা অপসারণকারী কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আন্দোলনে নামতে পারেন বলে ভুক্তভোগীরা জানিয়েছেন।

জানা যায়, ডিএসসিসির ৬৭ নম্বর ওয়ার্ডের আবর্জনা অপসারণের টেন্ডার তৃতীয় দফায় সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকে পায় ‘মা এন্টারপ্রাইজ’ নামের এক প্রতিষ্ঠান। ওয়ার্ডটিতে অন্তত সাড়ে সাত হাজার পরিবারের বসবাস। আবর্জনা অপসারণের জন্য মা এন্টারপ্রাইজের ২৪টি গাড়িতে ২৪ জন চালকসহ অতিরিক্ত আরো চারজন দায়িত্ব রয়েছে। যারা প্রতিদিন এলাকাভেদে গৃহস্থালী, মার্কেট ও শপিংমলের আবর্জনা অপসারণ করেন।

এদিকে গত কয়েকদিন ধরে পুরনো লোকগুলোকে দায়িত্ব থেকে অব্যহতি দিয়েছে মা এন্টারপ্রাইজ। তবে নতুন লোক নিয়োগের কথা থাকলেও বর্তমানে ১০ জন চালক নিয়োগ হয়েছে বলে জানায় সংশ্লিষ্টরা।

সরেজমিনে দেখা গেছে, ওয়ার্ডের পূর্ব-পশ্চিম বক্সনগর, আমতলা, টেংরা, মহাকাশ রোড, বড়ভাঙ্গা ও মা মেমেরিয়াল এলাকাসহ প্রায় প্রতিটি এলাকায় বাসাবাড়িসহ এলাকার ছোট বড় মার্কেট শপিংমলে জমে আছে গৃহস্থালীসহ সব ধরনের আবর্জনা।

বাসাবাড়ির চারদিকেই দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়ে এক অস্বস্তিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। এ বিষয়ে ওয়ার্ডের ‘মালেক প্লাজা’ মার্কেটের ব্যবসায়ী আলামিন বলেন, ‘গত এক সপ্তাহ ধরে মার্কেটের আবর্জনা অপসারণ করা হচ্ছে না। তাছাড়া বক্সনগর এলাকায় আমার বাসা বাড়িতেও আবর্জনা অপসারণ করা হচ্ছে না। অনেক খারাপ পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছি।‘

এ বিষয়ে ডিএসসিসির ৬৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো: ইব্রাহিম বলেন, ‘গত এক সপ্তাহ ধরে আবর্জনা অপসারণ করা হচ্ছে না বলে অভিযোগ আসছে কাউন্সিলর অফিসে। আমি কথা বলেছি মা এন্টারপ্রাইজের মালিক রাসেল বক্সের সাথে। তারা দ্রুত এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে জানান।’

এ বিষয়ে মা এন্টারপ্রাইজের মালিক রাসেল বক্স বলেন, লোকবল কম থাকায় খানিকটা সমস্যা হয়েছে যা দ্রুত সমাধান হয়ে যাবে।


আরো সংবাদ


premium cement