৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ন ১৪২৯, ৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

নারায়ণগঞ্জে নিখোঁজের ৪ দিন পর মিশুকচালকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার

স্বজনদের আহাজারি ও (ইনসেটে) নিহত কায়েস। - ছবি : নয়া দিগন্ত

নারায়ণগঞ্জের বন্দরে নিখোঁজের চার দিন পর হাত, পা ও মুখ বাঁধা অবস্থায় কায়েস (১৫) নামে এক মিশুকচালকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শনিবার (১ অক্টোবর) সকাল ১০টায় বন্দর উপজেলার কলাগাছিয়া ইউনিয়নের নরর্পদী এলাকার একটি ধানের ক্ষেত থেকে ওই মিশুকচালকের লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত মিশুকচালক কায়েস বন্দর থানার ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের নবীগঞ্জ অলিম্পিক হাউজিং এলাকার আবুল কাশেম মিয়ার ছেলে।

গত বুধবার ভোর ৬টায় মিশুক চালানোর উদ্দেশে তার নিজ বাড়ি থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হয় কায়েস।

স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে বন্দর থানা পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

এ ব্যাপারে নিহত মিশুকচালকের মা শারমিন বেগম অজ্ঞাতদের আসামি করে বন্দর থানায় হত্যা মামলার এজাহার দিয়েছেন।

শারমিন বেগম জানান, ‘আমার ছেলে কায়েস উত্তর নোয়াদ্দা এলাকার শফিক মিয়ার মিশুক গাড়ি দীর্ঘদিন ধরে চালিয়ে আসছিল। এর ধারাবাহিকতায় গত বুধবার ভোর ৬টায় প্রতিদিনের ন্যায় কায়েস গাড়ি নিয়ে কাজের উদ্দেশে বের হয়। কিন্তু এর পর থেকে সে নিখোঁজ ছিল। অনেক স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও তার কোনো হদিস না পেয়ে আমি গত বৃহস্পতিবার বন্দর থানায় জিডি করি। পরে এলাকাবাসীর মাধ্যমে জানাতে পারি, আমার ছেলের ভাড়াকৃত মিশুক গাড়িটি তার মালিক শফিক মিয়া গত বৃহস্পতিবার মদনপুর এলাকা থেকে উদ্ধার করেছে।’

বন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ দীপক চন্দ্র সাহা জানান, এলাকাবাসীর মাধ্যমে সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে হাজির হয়ে লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছি। এ ব্যাপারে থানায় হত্যা মামলা প্রস্তুতি চলছে।’


আরো সংবাদ


premium cement