০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

মুন্সিগঞ্জে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অপরাধে ছাত্রলীগ নেতা কারাগারে

মুন্সিগঞ্জে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অপরাধে ছাত্রলীগ নেতা কারাগারে - ফাইল ছবি।

মুন্সিগঞ্জের গজারিয়ায় ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত, ধর্ম অবমাননা এবং সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টি চেষ্টার অপরাধে সাবেক ছাত্রলীগ নেতাকে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার গজারিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোল্লা সোহেব আলী জানান, ‘বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) শাহিন পাঠান (৪৫) নামে সাবেক এক ছাত্রলীগ নেতা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি পোস্ট করেন। তার ওই পোস্টে আল্লাহ্পাক সম্পর্কে স্পর্শকাতর মন্তব্য ছিল। এদিকে পোস্টটি দেখার পরে এলাকাবাসীর মনে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।’ তারই ভিত্তিতে তাকে আটক করা হয়ে বলে জানা যায়।

শাহিন পাঠান উপজেলার বাউশিয়া ইউনিয়নের মৃত সুরুজ পাঠানের ছেলে। সে বাউশিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এবং গজারিয়া উপজেলা শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক বলে জানা গেছে।

বিষয়টি নিয়ে গজারিয়া উপজেলা শাখা ছাত্রলীগের বর্তমান সভাপতি ইউনুস প্রধান থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ শাহিন পাঠানকে আটক করে। তাকে আটকের পরে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে শাহিন পাঠান অনুতপ্ত না হয়ে তার অবস্থানে অনড় থাকেন।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়। এ ঘটনায় ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত, ধর্ম অবমাননা এবং সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টি চেষ্টার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ায় অভিযোগটি আমলে নিয়ে এফআইআরভূক্ত করা হয়। পরে ধর্ম অবমাননার মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে মামলার বাদি উপজেলা ছাত্রলীগের বর্তমান সভাপতি ইউনুস পাঠান বলেন, তার এই পোস্টের কারণে এলাকায় ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। বিষয়টিকে ইস্যু বানিয়ে বড় ধরনের রাজনৈতিক ফায়দা ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে যাতে না পারে সেজন্য নিজে থানায় অভিযোগ করেছেন যাতে বিষয়টি আইনের মাধ্যমে সমাধান হয়। এরই মধ্যে তাকে আটক করা হয়েছে এবং তার ব্যবহৃত মোবাইল এবং ল্যাপটপ জব্দ করেছে পুলিশ। ঘটনার সত্যতা পেয়ে তাকে অভিযোগটি আমলে নিয়ে মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করা হয়েছে।

এদিকে শাহিন পাঠানের বিতর্কিত মন্তব্যের কারণে চাপা উত্তেজনা বিরাজ করছে এলাকায়। বিষয়টি নিয়ে কর্মসূচি দেয়ার চিন্তাভাবনা করছে একাধিক ইসলামিক সংগঠনের নেতা-কর্মীরা। তবে শান্তি-শৃঙ্খলার কথা চিন্তা করে সকল পক্ষকে শান্ত থাকার পরামর্শ দিয়েছেন গজারিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোল্লা সাহেব আলী।


আরো সংবাদ


premium cement