২১ মে ২০২২
`

ধোয়া দেখে এগিয়ে গিয়ে কিশোরীর অগ্নিদগ্ধ লাশ পেলো এলাকাবাসী


ফরিদপুরে ফাঁকা মাঠ থেকে এক কিশোরীর আগুনে পুড়ে যাওয়া লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। এখনো লাশের পরিচয় শনাক্ত করা যায়নি।

মঙ্গলবার উপজেলার কৈজুরী ইউনিয়নের বিলনালিয়া গ্রামের গাজীর চক থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয়দের ধারনা, একটি সুটকেসের মধ্যে ১০ থেকে ১২ বছরের ওই কিশোরীর লাশ পেট্রোল ঢেলে আগুনে পুড়িয়ে দেয়া হয়।

কৈজুরী ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য (মেম্বার) মো. নুর উদ্দিন বলেন, সকালে স্থানীয় কৃষকরা আগুনে ধোয়া দেখতে পেয়ে এলকাবাসীকে খবর দেয়।

পশ্চিম বিলনালিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. কাজী তারেক বলেন, সকালে বিলনালিয়া গ্রামের পেছনের মাঠে কৃষকরা কাজ করতে গিয়ে লাশটি দেখতে পান। ধারণা করা হচ্ছে অজ্ঞাত কোনো কিশোরীকে হত্যার পর সুটকেস জাতীয় কোনো লাগেজ ভর্তি লাশটি পেট্রোল ঢেলে আগুনে পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে।

কৈজুরী ইউপির নারী সদস্য লিপি ইয়াসমিন বলেন, সোমবার দিবাগত শেষ রাতের দিকে লাশটিতে আগুন দেয়া হয়। লাশের নিচের অংশ এবং পুরো শরীর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। মাথার সামান্য অংশ ও চুল দেখে ধারণা করা হচ্ছে এটা কোনো কিশোরী লাশ।

ফরিদপুরের কোতয়ালী থানার উপ পরিদর্শক শংকর কুমার বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে আগুনে পুড়ে যাওয়া ছাই ও লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে ১০ থেকে ১২ বছরের কোনো কিশোরীর লাশ। তদন্তের পর বিস্তারিত জানা যাবে।

কোতোয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এম এ জলিল বলেন, খবর পেয়ে কোতোয়ালি থানা পুলিশ, সিআইডির ক্রাইমসিন টিম ও পিবিআই এর টিম ঘটনাস্থলে যায়৷ নিহতের পরিচয় এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। সিআইডি এবং পিবিআই আলামত সংগ্রহ করছে। লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হচ্ছে। পুলিশ ইতোমধ্যেই ঘটনাটি তদন্তে নেমেছে।


আরো সংবাদ


premium cement