১৬ জানুয়ারি ২০২২, ০২ মাঘ ১৪২৮, ১২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩
`
অভিভাবকরা অসহায়

সাভারে ক্লাশ পার্টির নামে চলছে উৎশৃঙ্খল আচরণ


সাভার পৌর এলাকাসহ বিভিন্ন স্থানে স্কুল ও মাদরাসাগুলোয় ক্লাশ পার্টির নামে চলছে উৎশৃঙ্খল আচরণ। প্রতিষ্ঠান গুলোতে প্রতি শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ২০০ থেকে ৩৫০ টাকা পর্যন্ত এর জন্য চাদা আদায় করা হচ্ছে।

শিক্ষকরা যখন ধার্যকৃত টাকার জন্য শিক্ষার্থীদের চাপ প্রয়োগ করেন তখন ছেলে-মেয়েদের অভিভাবকরা না দিয়ে পরছেন না।

এ ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানগুলো অনিয়মকে নিয়মে পরিনত করায় অভিভাবকরা অসহায় হয়ে পড়েছে।

অভিভাবকরা বলছেন, করোনায় এমনিতে আমাদের আয় অনেকটা কমে গেছে। যেখানে সরকার স্বাস্থ্য বিধি মেনে ক্লাশ করার অনুমতি দিয়েছে সেখানে স্কুল ও মাদরাসার শিক্ষকরা এ ধরনের নিয়ম বাইরে কাজ করে চলেছেন সে জন্য আমরা অসহায়।

একজন অভিভাবক নাম প্রকাশ না করে বলেন, ক্লাশ পার্টির দিন আমার ছেলে সকালে স্কুল ড্রেস পরে স্কুলে যায়। পরবর্তীতে ক্লাশ শেষে বাসায় ফেরার পর দেখি তার স্কুল ড্রেসের উপর একটি সাদা টি-সার্টের মধ্যে রং-বেরং কালি দিয়ে বিভিন্ন লেখা। যা দেখে আমি হতভম্ব হয়ে যাই।

সাভার উপজেলা ফেডারেশন অব কিল্ডারগার্টেন এসোসিয়েশনের মহাসচিব ও সাভার পৌর এলাকার রাজাশনের আল-হেরা পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রতিষ্ঠাতা মোহাম্মদ সফিকুল ইসলাম জানান- আমার প্রতিষ্ঠানেও ক্লাশ পার্টি হচ্ছে। এটা আসলে পর্শ্চাত্য সংস্কৃতি। এটা পালন করা ঠিক না। আমি এটা আমাদের ফেডারেশনের মিটিং-এ বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করব।

সাভার উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোসা: কামরুন্নাহার বুধবার বিকেলে বলেন-ক্লাশ পার্টি করার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে কোনো নির্দেশনা নেই। আর কেউ টাকা নিলে তা অপরাধ করেছে।


আরো সংবাদ


premium cement