৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ন ১৪২৮, ২৪ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিজরি
`

পদ্মায় হঠাৎ পানি বৃদ্ধি, রাজবাড়ী শহর প্রতিরক্ষা বাঁধের ৬০ মিটার নদীতে


পদ্মায় বুধবার রাত থেকে হঠাৎ পানি বাড়ায় রাজবাড়ীর পদ্মা নদীর প্রতিরক্ষা বাঁধে আবারো ভাঙন দেখা দিয়েছে। এতে গোদার বাজার চরসিলিমপুর এলাকায় বাঁধের ৬০ মিটার অংশ নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। বাঁধের কংক্রিটের তৈরি সিসি ব্লকও ধসে পড়ছে একের পর এক।

নদীর পারের দশটি বসতবাড়ি ভাঙনের হাত থেকে রক্ষার জন্য বৃহষ্পতিবার সকালে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

সকাল ১০টার দিকে ভাঙন এলাকায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) জরুরি আপদকালীন কাজ শুরু হয়েছে।

রাজবাড়ী পানি উন্নয়ন বোড সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছর এপ্রিল মাসে শেষ হওয়া পদ্মার ডান তীর রক্ষা সাত কিলোমিটার বাঁধের এ প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয় ৩৭৬ কোটি টাকা। প্রকল্পের কাজ শেষ না হতেই জুলাই মাসের মাঝামাঝি সময় থেকে শুরু হয় ভাঙন।

গত বুধবার পর্যন্ত রাজবাড়ী পদ্মা নদীর ডান তীর প্রতিরক্ষা বাঁধের ২০ জায়গায় প্রায় আট শ’ মিটার নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। বর্তমানে কিছু জায়গায় নদী থেকে বাঁধের দূরত্ব মাত্র ১০ মিটার। তবে ভাঙনরোধে জরুরি আপদকালীন কাজ করছে পানি উন্নয়ন বোর্ড।

রাজবাড়ী পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী আরিফুর রহমান অঙ্কুর বলেন, বুধবারের ভাঙনে প্রতিরক্ষা বাঁধের প্রায় ৬০ মিটার ধসে গেছে। ভাঙন জায়গায় জরুরি আপদকালীন কাজ হিসেবে জিও টিউব ফেলা হচ্ছে। এছাড়া এখন পর্যন্ত প্রায় প্রতিরক্ষা বাঁধের ২০টি জায়গায় ভাঙন দেখা দেয়।

ইতোমধ্যে ওইসব জায়গার একটি স্কুল,মসজিদ,মাদরাসা ও শতাধিক বসতবাড়ি নদী ভাঙনের
শিকার হয়েছে। আর হুমকির মধ্যে রয়েছে শত শত বসতবাড়ি ও ৪/৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। ওইসব স্থানে তাৎক্ষনিকভাবে বালু ভর্তি জিও ব্যাগ ফেলে ভাঙন কিছুটা হলেও ঠেকানো হয়েছে। তবে বর্ষার পরে নতুন প্রকল্প পাশ হলে টেকসই বাঁধ তৈরির কাজ শুরু হবে।

দেখুন:


আরো সংবাদ