২৮ জুলাই ২০২১
`
সাভারে জোড়া খুনের ঘটনায় গ্রেফতার ১

পারিবারিক বিরোধের জেরে ২ শিক্ষার্থীকে হত্যা করা হয়

গ্রেফতার প্রধান আসামি শাহজালাল - ছবি নয়া দিগন্ত

সাভারের ভাকুর্তা ইউনিয়নের হারুলিয়া গ্রামের রায়হান (১৮) ও নাজমুল (১৮) নামে দুই শিক্ষার্থীকে ছুরিকাঘাতে হত্যার ঘটনায় প্রধান আসামি শাহজালালকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার দুপুরে তাকে হত্যা মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে। তবে এ ঘটনায় এখনো রবিউল নামে আরো একজন পলাতক রয়েছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দুই শিক্ষার্থী সম্পর্কে খালাত ভাই। তাদের হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটির তদন্তে নামে পুলিশ। ৪৬ ঘণ্টার অভিযানে আসামি শাহাজালালকে গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনায় তার সহযোগী রবিউলও পুলিশের নজরদারিতে রয়েছেন। যে কোনো সময় তাকে গ্রেফতার করা হবে।

সোমবার দুপুরে সাভার মডেল থানায় সাংবাদিকদেরকে হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে ব্রিফ করেন ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহিল কাফি।

এ সময় তিনি বলেন, পারিবারিক বিরোধের জেরেই সাভারের ভাকুর্তা ইউনিয়নের হারুরিয়া এলাকায় দুই ভাইকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়। এদের মধ্যে নিহত রায়হানের আপন ফুফাতো ভাই হলো শাহজালাল।

তিনি আগে রায়হানদের বাসায় থাকতেন। সে সময়ে বিভিন্ন বিষয়ে তাদের মধ্যে মতবিরোধ ছিলো। একপর্যায়ে শাহজালাল রায়হানের বাসা থেকে চলে আসে এবং ক্ষোভে রায়হানকে হত্যার পরিকল্পনা করে।

তিনি বলেন, পরিকল্পনা অনুযায়ী শাহাজালাল তার সহকর্মী রবিউলকে সাথে নিয়ে রায়হানকে বাসা থেকে ডেকে নেয়। এ সময় রায়হানদের বাসায় বেড়াতে আসা খালাতো ভাই নাজমুলও তাদের সাথে গেলে প্রথমে তাদেরকে নেশাজাতীয় খাবার খাওয়ানো হয়। পরে তাদেরকে বাসা থেকে এক কিলোমিটার দূরে পাটক্ষেতে নিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে। ঘটনাস্থল থেকে শাহজালালের পরিহিত প্যান্ড ও হত্যাকাণ্ডে ব্যাবহৃত ছুড়ি উদ্ধার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার সকালে স্থানীয় কৃষকদের মাধ্যমে খবর পেয়ে সাভারের ভাকুর্তা ইউনিয়নের হারুলিয়া গ্রামের পাটক্ষেত থেকে দুই শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় নিহত রায়হানের মা খাদিজা বেগম সাভার মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা করলে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ১০ জনকে আটক করে। পরে তাদের জিজ্ঞাবাসাদে হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন হয়। মূল আসামি শাহাজালালকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

নিহতরা হলেন, বরিশাল জেলার গৌরনদী থানা এলাকার শেওড়া উত্তর পাড়া গ্রামের রতন খানের ছেলে রায়হান (১৮) ও একই জেলা ও থানা এলাকার পশ্চিম শেওড়া গ্রামের নেছার উদ্দিনের ছেলে নাজমুল (১৮)। তারা দু’জন সম্পর্কে খালাতো ভাই ও এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিলেন।



আরো সংবাদ