০৮ মে ২০২১
`

শ্রীপুরে সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজী করতে গিয়ে যুবক-যুবতী আটক

গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ, থানায় মামলা
ওই যুবককে গণধোলাই দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। - ছবি : নয়া দিগন্ত

গাজীপুরের শ্রীপুরে চ্যানেল আইয়ের সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে চাঁদাবাজীর অভিযোগে এক যুবককে গণধোলাই দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। এসময় তার সহযোগী এক যুবতীকেও আটক করা হয়।

সোমবার তাদেরকে শ্রীপুর উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়নের নয়াপাড়া কাশিমপুর বাজার এলাকা থেকে আটক করা হয়। সন্ধ্যায় তাদের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজীর অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের করা হয়।

আটককৃতরা হলো- গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়নের কালীবাড়ী মন্দির এলাকার মৃত আব্দুল মতিনের ছেলে রমজান আলী ওরফে রুবেল (৩৫) এবং সুনামগঞ্জ জেলার দোয়ারা বাজার থানার পালাইছড়া এলাকার মফিজ মিয়ার মেয়ে পারভীন আক্তার (২৪)।

এলাকাবাসী জানান, শ্রীপুর উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়নের কাশিমপুর এলাকাসহ আশেপাশের কিছু জমি সরকারি (বন বিভাগ) গেজেটভুক্ত রয়েছে। গ্রামের যেকোনো ব্যক্তি বাড়ি সংস্কার, পুকুর খনন এবং বাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নির্মাণের উদ্যোগ নিলে চ্যানেল আইয়ের সাংবাদিক পরিচয়ে রমজান আলী ওরফে রুবেল ও তার সহযোগীরা সেখানে গিয়ে হুমকি ও ভয়ভীতি দেখিয়ে টাকা দাবি ও আদায় করে আসছিল। তাদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে পড়ে স্থানীয়রা। রুবেল স্থানীয় কাওরাইদ বাজারে ঘড়ি মেরামতের মিস্ত্রী ছিল। সম্প্রতি সে চ্যানেল আইয়ের লগো ব্যবহার করে মোটরসাইকেলে চড়ে এলাকায় এসব করে বেড়ায়।

স্থানীয় ইউপি সদস্য কলিম উদ্দিন মেম্বার ওইসব অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ওই যুবকের উৎপীড়নে স্থানীয়রা আগে থেকেই ক্ষুব্ধ। দুইদিন আগে কাওরাইদ ইউনিয়নের নয়াপাড়া কাশিমপুর বাজার এলাকার ব্যবসায়ী নাজমুলকে ভয়ভীতি দেখিয়ে তার কাছ থেকে দুই হাজার টাকা আদায় করে নিয়ে যায় রুবেল। সোমবার দুপুরে সাংবাদিক পরিচয়ের এক যুবতীকে সাথে নিয়ে আবারো ওই ব্যবসায়ীর কাছে গিয়ে টাকা দাবি করে রুবেল। ব্যবসায়ী টাকা দিতে অস্বীকার করলে তাদের মধ্যে বাগ্বিতণ্ডা হয়। এসময় রুবেল ও তার সঙ্গী পারভীন তাকে হুমকি দেয়। বিষয়টি জানতে পেরে এলাকাবাসী ঘটনাস্থলে আসে এবং ওই দুইজনকে আটক করে। এক পর্যায়ে ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী রুবেলকে গণধোলাই দেয়। খবর শুনে রুবেলকে রক্ষা করতে গিয়ে আমি নিজেও আহত হই।

আহত রমজান আলী ওরফে রুবেল নিজেকে চ্যানেল আইয়ের ক্যামেরাপার্সন পরিচয় দিয়ে জানান, কাওরাইদ ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য কলিম উদ্দিন মেম্বার সরকারি জমি দখল করে অবৈধভাবে ঘরবাড়ি নির্মাণ করছেন। বিষয়টি তার কাছে জানতে চাইলে তিনি অস্বীকার করেন। এর প্রেক্ষিতে আমি সোমবার সকালে সংবাদ ও ভিডিওচিত্র সংগ্রহের জন্য ঘটনাস্থলে যাই। সেখানে স্থাপিত একটি স’মিলের ভিডিওচিত্র ধারণকালে ওই ইউপি সদস্যের ছেলেসহ কয়েক যুবক ঘটনাস্থলে আসে এবং আমাকে আটক করে। তারা আমার কাছ থেকে মোবাইল ফোনসহ টাকা-পয়সা ছিনিয়ে নেয়। যুবকরা আমাকে কয়েক দফা এলোপাতাড়ি মারধর করে। এতে আমি মুখ ও মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখমপ্রাপ্ত হই। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে আমাদের দুজনকে উদ্ধার করে।

এ ব্যাপারে চ্যানেল আইয়ের গাজীপুর প্রতিনিধি ফজলুল হক মোড়ল জানান, রমজান আলী রুবেল টিভি অফিসের নিয়োগপ্রাপ্ত নয়। সে আমার ব্যক্তিগত ক্যামেরাম্যান। বিভিন্ন সময় আমার অফিসের জন্য সে ফুটেজ সংগ্রহ করে থাকে।

শ্রীপুর থানার ওসি খন্দকার ঈমাম হোসেন জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল গিয়ে আটক রুবেল ও তার সহযোগী পারভীনকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। চাঁদাবাজীর অভিযোগে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন নাজমুল নামের স্থানীয় এক ব্যক্তি।



আরো সংবাদ