১৮ এপ্রিল ২০২১
`

সিংগাইর ডিগ্রী কলেজের ভিপি মিরুকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার ৩

সিংগাইর ডিগ্রী কলেজের ভিপি মিরুকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার ৩ - ছবি : নয়া দিগন্ত

মানিকগঞ্জের সিংগাইর ডিগ্রী কলেজের ভিপি ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো: ফারুক হোসেন মিরুকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় বুধবার থানায় মামলা হয়েছে। নিহত মিরুর বড় ভাই রিয়াজুল করিম ১২ জনকে আসামি করে এ মামলা দায়ের করেন। এর আগে নিহতের লাশ ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করে মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে জানাজা শেষে স্থানীয় আজিমপুর কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে। হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত এজাহারভুক্ত তিনজনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছেন।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন পৌর এলাকার আজিমপুর মহল্লার আব্দুর রাজ্জাক ওরফে ধোনাই মোল্লার ছেলে ইমরান মোল্লা (২০), সোহান মোল্লা (১৭) ও সিএনজিচালক পার্শ্ববর্তী নয়াডাঙ্গী মহল্লার শামসুল হকের ছেলে ইমান আলী (৩০)।

গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে ইমরান ও সোহান হত্যাকাণ্ডের মূলহোতা সিংগাইর ডিগ্রী কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোল্লা মো: দুলাল এবং সিংগাইর উপজেলা সড়ক পরিবহণ শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক জালাল উদ্দিন আঙ্গুর মোল্লার ছোট ভাই।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিংগাইর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রকিবুজ্জামান বলেন, গ্রেফতারকৃত তিনজনই মামলার এজাহারভুক্ত আসামি। হত্যাকাণ্ডের পরেই বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করা হয়। একইসাথে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহ্নত দু’টি সিএনজি, একটি মোটরসাইকেল ও রক্তমাখা কাপড়সহ একটি ছেনি উদ্ধার করা হয়েছে। হত্যারমূল রহস্য উদঘাটিত হয়েছে বলেও তিনি জানিয়েছেন।

এ দিকে দলীয় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে পৌর নির্বাচন পরবর্তী ক্ষমতাসীন দলের মধ্যে এমন নৃশংস হত্যাকাণ্ডে পুরো এলাকা স্তব্ধ হয়ে পড়েছে। রাজনৈতিক অভ্যন্তরীণকোন্দল নিয়ে ক্ষমতাসীন দলের মধ্যে এরকম হত্যাকাণ্ড সিংগাইরে এটাই প্রথম।

পুলিশের পাশাপাশি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিভিন্ন ইউনিট মিরু হত্যাকাণ্ডের ছায়া তদন্ত করছেন। তারা এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি গভীরভাবে খতিয়ে নেপথ্যের কারণ খুঁজছেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়। মামলার বাদি নিহত ভিপি মিরুর ভাই রিয়াজুল করিম জানিয়েছেন, এ হত্যার বিচারের দাবিতে বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলা পরিষদ চত্বরে প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন করা হবে।

এ ব্যাপারে সহকারী পুলিশ সুপার (সিংগাইর সার্কেল) মো: রেজাউল হক জানিয়েছেন, পুলিশ টিম ওয়ার্কের মাধমে হত্যাকাণ্ডের মোটিভ উদঘাটনে সক্ষম হয়েছে। ইতোমধ্যে তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারের সর্বোচ্চ চেষ্টা চলছে।

উল্লেখ্য, গত সোমবার দিবাগত গভীর রাতে ভিপি ফারুক হোসেন মিরু উপজেলা চত্বর সংলগ্ন বিএডিসি গোডাউনের উত্তর পাশের রাস্তায় হামলার শিকার হন। মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।



আরো সংবাদ