৩০ জুলাই ২০২১
`

ভাই-ভাবী ও ভাতিজাকে একাই হত্যা করে দীন ইসলাম

হত্যাকাণ্ডের শিকার তিনজন - ছবি : সংগৃহীত

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে একাই আপন ভাই-ভাবী ও ভাতিজাকে হত্যা করে তিনজনের লাশ বাড়ির আঙ্গিনার পাশে গর্ত করে মাটিচাপা দিয়েছেন দীন ইসলাম।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, নিখোঁজের এক দিন পর বাড়ির পাশ থেকে একসাথে মাটিচাপা মা-বাবা ও শিশু ছেলের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ সময় নিহতের ছোট ভাই দীন ইসলামসহ চারজনকে আটক করা হয়।

নিহতরা হলেন, আসাদ মিয়া (৫৫), তার স্ত্রী পারভীন আক্তার (৪২) ও তাদের শিশু ছেলে লিয়ন (৭)।

জিজ্ঞাসাবাদের সময় দীন ইসলাম পুলিশকে জানান, জমিজমা ও পারিবারিক বিরোধকে কেন্দ্র করে তিনি একাই তিনজনকে হত্যা করেছেন। ঘটনার দিন রাত ১টার দিকে ঘুমন্ত অবস্থায় শাবল দিয়ে বড় ভাই আসাদকে হত্যা করার পর ভাবি পারভীন আক্তার ও ভাতিজা লিয়নকে হত্যা করেন। পরে ঘরের পাশেই একটি গর্ত খুঁড়ে প্রথমে ভাই আসাদকে, পরে ভাবী ও ভাতিজাকে রেখে মাটিচাপা দিয়ে রাখেন।

নির্মম এ ঘটনাটি তিনি একাই ঘটিয়েছে বলে দায় স্বীকার করলেও পুলিশ অধিকতর তদন্তের স্বার্থে আটক অন্যান্যদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ ও তদন্ত অব্যাহত রেখেছেন।

শুক্রবার কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে ডা: রাকিব আশকারীর নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি টিম ময়নাতদন্তের কাজ করেন। ময়নাতদন্তের পর নিহতের বড় ছেলে তোফাজ্জল হোসেন লাশ গ্রহণ করে বাড়িতে এনে জানাজার নামাজ ও দাফনের পর মামলা দায়ের করবেন বলে জানিয়েছেন।

কিশোরগঞ্জ পুলিশ সুপার মো: মাশরুকুর রহমান খালেদ সাংবাদিকদের জানান, এ ঘটনার প্রকৃতি দেখে মনে হয়েছে পূর্ব পারিবারিক বিরোধের জেরে এ ঘটনা ঘটেছে। তাই এ ঘটনায় নিহত আসাদের ভাই দীন ইসলাম, দুই বোন নাজমা, তাসলিমা ও তাসলিমার স্বামী ফজলু মিয়াকে আটক করা হয়েছে। একই সাথে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আসাদের মাকেও থানা হেফাজতে নেয়া হয়েছে। দ্রুততম সময়ের মধ্যে এ হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন সম্ভব হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন পুলিশ সুপার।

কটিয়াদী মডেল থানার ওসি এমএ জলিল জানান, ময়নাতদন্তের জন্য লাশ কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় এখনো কোনো লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়নি।

উল্লেখ্য, গত বুধবার থেকে নিখোঁজের এক দিন পর কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলার নিজ বাড়ির পাশ থেকে মাটি খুঁড়ে বাবা-মা ও ছেলের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার বনগ্রাম ইউনিয়নের জামষাইট কান্দাপাড়া গ্রামের নিজ বাড়ি সংলগ্ন বাঁশঝাড় থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়।



আরো সংবাদ