০২ অক্টোবর ২০২০

সাটুরিয়ায় ইউএনওর কাছে চাঁদা চেয়ে কথিত সাংবাদিকের ফোন

-

নিজেকে প্রথম সারির একটি জাতীয় দৈনিকের সাংবাদিক পরিচয়ে মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো: আশরাফুল আলমের সরকারি নাম্বারে ফোন করে চাঁদা দাবি করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে একটি বাংলালিংকের নম্বর থেকে ফোন করে এ চাঁদা দাবি করা হয়। এ সময় টাকা না দেয়া হলে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি দেখিয়ে হুমকি দেয়া হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে ফোন পাওয়া ইউএনও উদ্বিগ্ন। এ বিষয়ে থানায় জিডি করে আইনগত ব্যবস্থার প্রক্রিয়া চলছে।

ফোন পাওয়া ইউএনও তার ব্যক্তিগত ফেসবুক ওয়ালে জানান, এই মুহূর্তে অদ্ভুত একটা ফোন রিসিভ করলাম ০১৯৭৮৫৮১১৭৮ নম্বর থেকে। তিনি পরিচয় দিলেন শাহরিয়ার শোভন প্রথম সারির একটি জাতীয় দৈনিকের ঢাকা সম্পাদকীয় অফিস থেকে। তিনি বললেন, সাটুরিয়া থেকে নাকি কিছু অভিযোগ উনার বরাবর গেছে। উনি আমার পরিচিত কাউকে ঢাকায় দেখা করার কথা বললেন। বিশ্বাস করেন আমি কিছুই বলিনি। শুধু বলেছি, এই লাইনে কতদিন থেকে? উনি ফোনটা সাথে সাথে কেটে দিলেন। আমি জানি না ব্যক্তিটা কে? তবে ওই পত্রিকার নাম পরিচয় ব্যবহার করে এই ব্যক্তি হয়ত আরো চাঁদাবাজি করে থাকতে পারে।

এ বিষয়ে সাটুরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আশরাফুল আলম নয়া দিগন্তকে বলেন, সরকারি নাম্বারে ফোন দিয়ে নিজেকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে হুমকি দিয়ে চাঁদা দাবি করেন এক ব্যক্তি। থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করে ও কাউন্টার টেররিজম ইউনিটে যোগাযোগ করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আরো সংবাদ