২১ অক্টোবর ২০২০

নতুন জামা আর খাবার পেয়ে ওরা ঈদ আনন্দে আত্মহারা

-

ওর নাম হাসান। বয়স ৬ পেরিয়ে ৭ বছর। মা আরজিনা বেগম কাজ করেন বিভিন্ন জনের বাসা বাড়িতে। মা বাসা বাড়িতে কাজে যাওয়ার কারনে এতটুকু ছেলেকে এতোদিন রাখা হয় নারায়ণগঞ্জ চানমারি বস্তির পাশ্বে সরকারি ডে কেয়ার সেন্টারে। করোনার কারণে গত দুই মাস ধরে ডে কেয়ার সেন্টারটি বন্ধ। হাসানের মায়েরও আগে মতো মানুষের বাসায় কাজে যাওয়া হয় না।

কিন্তু ঈদে হাসানের বায়না নুতন জামার। আরিজনা বেগম ও তার রিকশাচালক স্বামীর সাধ্য নেই শিশূ হাসানের জন্য নতুন জামা কিনে দেয়ার। সুবিধা বঞ্চিত অসহায় শিশুর মুখে ঈদের হাসি ফুটাতে এগিয়ে এসেছেন জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত নারী উদ্যোক্তা সাবিরা সুলতানা নীলা। তিনি একাধারে রঙ মেলা নারী কল্যাণ সংস্থার সভাপতি।

শুধু হাসান নয় তার সহপাঠি আমিনুল, সাবিনা, টাইগারসহ ১শ ছিন্নমুল পথশিশু ও সুবিধা বঞ্চিত শিশুর জন্য ঈদে নুতন জামা কাপড় এবং ঈদের দিন দুপুরে সাড়ে ৫শ শিশুর জন্য রান্না করা খাবার বিতরন করেন সাবিরা সুলতানা নীলা।

নুতন জামা (ফতুয়া) পেয়ে বেজায় খুশি টাইগার নামের ৬ বছরের শিশুটি। বাবা মা নেই টাইগারের । নানীর তত্ববধানে বড় হচ্ছে সে। ঈদের দিনে নতুন জামা পড়তে পেরে ছিন্নমুল এশিশুর আনন্দের শেষ নেই।

জানা যায়, নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাড়ার মফিজুল ইসলাম আবাসিক এলাকায় ছিন্নমূল পথশিশু সহ চানমারী বস্তি শিশুও মাদ্রাসার এতিম সাড়ে ৫শ শিশু মধ্যে ঈদের দিন দুপুওে রান্না করা খাবার বিতরন করেন সাবিরা সুলতানা নীলা এছাড়া ঈদের আগের দিন রোববার ১০০ শিশুকে ঈদের নুতন জামা দেন তিনি। নিজে উদ্যোগ নিয়ে এমহৎ কাজে এগিয়ে এলে তাকে কিছুটা সহযোগিতা করেন তার স্বজনরা।
ঈদের দিন রান্না করা খাবার কয়েকটি মাদ্রাসায়,আবাসিক এলাকার গৃহকর্মী ও ছিন্নমূল পথশিশুসহ চানমারী বস্তি শিশুদের মধ্যে প্রায় ৫৫০ প্যাকেট খাবার বিতরন করেন।

খাবার বিতরনকালে এ সময় সাথে উপস্থিত ছিলেন ডে কেয়ার কর্মকর্তা ছাবিকুন নাহার, রংমেলা নারী কল্যাণ সংস্থার সদস্য লাবনী সরকারসহ প্রমূখ।

নয়াদিগন্তকে সাবিরা সুলতানা নীলা জানান, করোনা দুর্যোগে সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের জন্য কিছু করবো এমন চিন্তা থেকেই এ উদ্যো গ । কারন এসব অসহায় শিশুরা টাকার অভাবে ঈদে নুতন জামা কিনতে পারেনা। ঈদের দিন ভালো খাবার খেতে পারেনা। অন্তত ঈদের দিন ওদের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য আমার এক ক্ষুদ্র প্রয়াস। সমাজের বিত্তবানরা যদি এসব সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয় তাহলে কোমলমতি শিশুরা একটু সহায় পাবে।

সাবিরা সুলতানা নীলা দীর্ঘ বছর যাবৎ সমাজের অসহায়, সুবিধা বঞ্চিত মানুষের জন্য নিরলস ভাবে কাজ করে আসছেন। করোনার শুরুতেই অসহায় মানুষের মধ্যে কয়েক ধাপে ত্রান সামগ্রী বিতরণ করেন।


আরো সংবাদ

আবারো মস্কো গেলেন আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা ডিএসসিসিতে গুরুত্বপূর্ণ ৫টি পদে রদবদল ট্যাংক-অস্ত্রশস্ত্র ফেলে যুদ্ধের ময়দান থেকে পালাচ্ছে আর্মেনীয় বাহিনী ফলাফল প্রত্যাখ্যান করে বিএনপি প্রার্থীর সংবাদ সম্মেলন আলুর দাম নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ সরকার : জিএম কাদের ইতালিতে ফিরতে হলে প্রবাসীদের থাকতে হবে বাসস্থানের ঠিকানা খুলনাবাসী দাদু ভাইয়ের অবদান চিরদিন স্মরণ রাখবে কলেজ প্রতিষ্ঠার দাবীতে ফিজিও থেরাপিস্টদের মানববন্ধন বিএনপি শুভানুধ্যায়ীদের আজকের জিজ্ঞাসা মুন্সীগঞ্জে অস্ত্র মামলায় আ’লীগ নেতা ও তার ভাই রিমান্ডে ফরম পূরণের টাকা ফেরত পাবে এইচএসসির শিক্ষার্থীরা

সকল