০৮ জুলাই ২০২০

রাজবাড়ীতে ত্রাণ দেয়ার কথা বলে নদীর পাড়ে নিয়ে প্রতিবন্ধী শিশুকে ধর্ষণ

-

ত্রাণ দেয়ার কথা বলে আট বছরের এক প্রতিবন্ধী শিশুকে পদ্মা নদীর পাড়ে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার রাজবাড়ী সদর উপজেলায় এ ঘটনা ঘটে। বর্তমানে শিশুটি রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে ভর্তি আছে।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে ত্রাণ দেয়ার কথা বলে শিশুটিকে পদ্মার পাড়ে নিয়ে যান বরাট ইউনিয়নের পূর্ব উড়াকান্দা গ্রামের শামসু মোল্লার ছেলে লালমিয়া মোল্লা। সেখানে নিয়ে শিশুটিকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যান তিনি।

ভুক্তভোগীর পরিবার জানায়, ত্রাণ দেয়ার মিথ্যা প্রলোভনে মেয়েটিকে ধর্ষণ করা হয়। শিশুটি বাড়িতে এসে ধর্ষণের বিষয়টি জানায়। পরে বৃহস্পতিবার বিকেলেই রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় শিশুটিকে।

শিশুটির বাবা জানান, দেশের এই দুর্যোগকালে তার অসুস্থ মেয়েকে হাসপাতালে নিয়ে দৌড়াদৌড়ি করছেন। মেয়ের ধর্ষক লালমিয়ার শাস্তি চান তিনি।

বরাট ইউপি চেয়ারম্যান শেখ মনিরুজ্জামান সালাম জানান, ত্রাণের নামে শিশু ধর্ষণের ঘটনা শুনেছি। এটি সমাজের খুবই খারাপ চিত্র। ধর্ষককে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানান তিনি।

সদর থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদার বলেন, শিশুটির পরিবার বাদি হয়ে শিশু ও নারী নির্যাতন আইনে মামলা করেছে। ধর্ষক পলাতক রয়েছে। পুলিশ গত বৃহস্পতিবার থেকেই ওই ধর্ষককে খুঁজছে।

দেখুন:

আরো সংবাদ