০৩ এপ্রিল ২০২০

গাজীপুরে স্বামীর ছুরিকাঘাতে গার্মেন্টসকর্মী খুন

টুম্পাকে খুন করার সময় গান বাজাতে থাকেন রকি - ছবি : নয়া দিগন্ত

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে পারিবারিক কলহের জেরে গার্মেন্টসকর্মী এক সন্তানের জননীকে ছুরিকাঘাতে খুন করেছেন তার স্বামী। ঘটনার পর থেকে ঘাতক স্বামী পলাতক রয়েছেন।

নিহতের নাম সাথী আক্তার টুম্পা (২২)। তিনি পাবনা সদর উপজেলার পাঁচবিবি এলাকার রকি হোসেনের (২৬) স্ত্রী এবং একই জেলার ঈশ^রদী থানার কলোনী বাজার এলাকার আব্দুল মান্নানের মেয়ে।

মৌচাক পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর মোজাম্মেল হোসেন ও স্থানীয়রা জানান, গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার ভান্নারা এলাকায় শেখ জালাল উদ্দিনের বাড়িতে গত তিন সপ্তাহ আগে বাসা ভাড়া নিয়ে স্ত্রী টুম্পা ও একমাত্র সন্তানকে (১৭ মাস) নিয়ে বসবাস করে আসছিলেন রকি হোসেন। টুম্পা একজন গার্মেন্টসকর্মী।

দাম্পত্য কলহের জেরে শুক্রবার সকালে রকি ও টুম্পার মাঝে ঝগড়া বিবাদ শুরু হয়। একপর্যায়ে ঘরের দরজার ছিটকিনি আটকিয়ে উচ্চস্বরে গান বাজাতে থাকে। এসময় টুম্পার মাথায় ও শরীরে ছুরিকাঘাত করে তার স্বামী। এতে টুম্পা মাটিতে লুটিয়ে পড়ে।

আহত টুম্পার চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে রকি ঘরের দরজা খুলে দৌড়ে পালিয়ে যায়। পরে এলাকাবাসী রক্তাক্ত টুম্পাকে উদ্ধার করে কালিয়াকৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ৯৯৯-এর মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায় এবং হত্যার কাজে ব্যবহৃত রক্তমাখা একটি বড় ছোরা উদ্ধার করে। ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে। তবে কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি।


আরো সংবাদ