০৩ জুন ২০২০

কাশিয়ানীতে ৬ বছরের শিশুকে গলাকেটে হত্যা

নিহত সুমির স্বজনদের আহাজারি, (ইনসেটে সুমি) - ছবি : নয়া দিগন্ত

গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী উপজেলায় সুমা খানম নামে ছয় বছরের এক শিশুকে গলাকেটে হত্যা করা হয়েছে। সে চাপ্তা গ্রামের মো: মিজান শেখের মেয়ে এবং চাপ্তা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণীর ছাত্রী ছিল।

নিখোঁজের ১০ ঘন্টা পর বুধবার দিবাগত রাত আড়াইটায় দিকে পাশের কুসুমদিয়া গ্রামের একটি পরিত্যক্ত ভিটা থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে প্রতিবেশী মো: মিন্টু মোল্যার ছেলে  আজিম মোল্যা (২১)ও মো:হাসু মোল্যার ছেলে নূর মোহাম্মাদ মোল্যা (১৪) নামে দু’জনকে আটক করেছে পুলিশ।

এলাকাবাসীর ধারণা, শিশুটিকে ধর্ষণের পর গলাকেটে হত্যা করা হয়েছে।

নিহত শিশুটি মা মোসা: রেহানা বেগম জানান, সুমাকে প্রতিবেশীর ছেলে নূর মোহাম্মাদ বৃহস্পতিবার বিকেলে খেলার জন্য বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। সন্ধ্যায় সুমা বাড়িতে ফিরে না আসায় রেহানা  নূরকে জিজ্ঞাসা করে। নূর বলে, সুমা বাড়িতে চলে এসেছে।

অনেক খোঁজাখুঁজির পর মেয়েকে না পেয়ে বাবা মো: মিজান শেখ রাতেই কাশিয়ানী থানায় একটি নিখোঁজ ডায়রি করেন।

রাত আড়াইটার দিকে পাশের গ্রাম কুসুমদিয়ার একটি পরিত্যক্ত ভিটায় সুমার গলাকাটা লাশ দেখতে পেয়ে এলাকাবাসী পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে সুমার লাশ উদ্ধার করে গোপালগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

কাশিয়ানী থানার অফিসার ইনচার্জ মো: আজিজুর রহমান জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে এবং এ ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য প্রতিবেশী আজিম এবং নূর মোহাম্মাদ নামের দুজনকে আটক করা হয়েছে। তাদের  জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।


আরো সংবাদ