২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

মাদরাসাছাত্রী ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে শিক্ষক গ্রেফতার

মাদরাসাছাত্রী ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে শিক্ষক গ্রেফতার - ফাইল ছবি

আশুলিয়ায় একটি কওমি মাদরাসার ১২ বছরের এক ছাত্রী ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে একই মাদরাসার শিক্ষক ছলিম আহমদকে (২৭) গ্রেফতার করে আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ। মঙ্গলবার রাত ৯টায় তাকে গ্রেফতার করা হয়।

মাদ্রাসা শিক্ষক ছলিম আহমদ মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা থানাধীন মাইজগ্রাম এলাকার সমছ উদ্দিনের ছেলে। সে আশুলিয়ার ভাদাইল পবনারটেক আতাউর রহমানের বাড়ির মারকাজুল কুরআন ও সুন্নাহ মাদ্রাসার শিক্ষক।

এ ব্যাপারে ওই ছাত্রীর পিতা ওমর আলী বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। অভিযোগে জানান, সে একজন গাড়ি চালক। তার স্ত্রী একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করেন। তার ১২ বছর বয়সি একমাত্র মেয়ে মারকাজুল কুরআন ও সুন্নাহ মাদরাসায় ৩য় শ্রেণিতে লেখাপড়া করে। মাদরাসার শিক্ষক ছলিম আহমদ তার মেয়েকে বিভিন্ন সময় জড়িয়ে ধরে এবং তার শরীরের স্পর্শকাতর জায়গায় হাত দেয়। গত ১০ জানুয়ারি সকালে ওই শিক্ষক তার মেয়েকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় মেয়ে চিৎকার করলে তাকে ছেড়ে দেয়। এ ঘটনা কাউকে জানালে তাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয় ওই শিক্ষক। সেই থেকে তার মেয়ে ওই মাদরাসায় যায় না। তাকে মাদরাসায় যেতে বললে, সে কান্নাকাটি করে। এক পর্যায় সে সব ঘটনা তাদেরকে জানালে তারা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

জানতে চাইলে আশুলিয়া থানার ওসি ইউনুস বলেন , থানায় লিখিত অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছি। বুধবার সকালে গ্রেফতারকৃতকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।


আরো সংবাদ