০৮ আগস্ট ২০২০

স্কুল ছাত্রকে খ্রিষ্টান ধর্মে দীক্ষিতের প্রতিবাদে আলেম-উলামাদের মানববন্ধন

-
24tkt

জামালপুরে মেলান্দহ উপজেলায় প্রলোভন দেখিয়ে অন্যায়ভাবে সপ্তম শ্রেণির ছাত্র ইয়াসিন ইসলাম আকাশকে খ্রিষ্টান ধর্মে দীক্ষিত করার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে আলেম-উলামাবৃন্দ।

জেলা ইত্তেফাকুল উলামার আয়োজনে বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টার দিকে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এছাড়া একই দাবিতে বুধবার দুপুরে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশ শেষে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন জেলা ইত্তেফাকুল উলামার নেতৃবৃন্দ।

আজ ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন-মুফতি শামসুদ্দিন, মুফতি আব্দুল্লাহ, মাওলানা মাসউদ হোসাইন, মাওলানা হাসান আলী, ডাক্তার সৈয়দ ইউনুস আহম্মদ, মুফতি মোস্তফা কামাল প্রমুখ।

প্রলোভন দেখিয়ে স্কুলছাত্র ইয়াসিন ইসলাম আকাশকে খ্রিষ্টান ধর্মে দীক্ষিত করার মূলহোতা জহুরুল উদ্দিন জহিরসহ তার সহযোগিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান বক্তারা। অন্যথায় রাজপথে কঠোর আন্দোলন করার হুশিয়ারী উচ্চারণ করেন তারা।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি জেলার মেলান্দহ উপজেলার শ্যামপুর গ্রামের সাইফুল ইসলামের ছেলে সপ্তম শ্রেণির ছাত্র ইয়াসিন ইসলাম আকাশকে প্রলোভন দেখিয়ে অন্যায়ভাবে খ্রিষ্টান ধর্মে দীক্ষিত করেছে জহুরুল উদ্দিন জহির। তিনি জেলার ইসলামপুর উপজেলার কুলকান্দি গ্রামের বাবর আলীর ছেলে। এ ঘটনায় ইয়াসিন ইসলাম আকাশের মা আনজুয়ারা বেগম বাদী হয়ে মেলান্দহ থানায় মামলা দায়ের করলে মঙ্গলবার রাতে অভিযুক্ত জহুরুল উদ্দিন জহিরকে (৬৫) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এদিকে ইয়াসিন ইসলাম আকাশের মা আনজুয়ারা বেগম জানান, ইয়াসিন ইসলাম আকাশ তার নানা আমজাদ হোসেনের কাছে থেকে শ্যামপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে সপ্তম শ্রেণিতে পড়ত। ফুসলিয়ে নিয়ে গিয়ে প্রলোভন দেখিয়ে ইয়াসিন ইসলাম আকাশের হাতে বাইবেল দিয়ে শপথ বাক্য পাঠ করিয়ে খ্রিষ্টান ধর্মে দীক্ষিত করেছে জহুরুল উদ্দিন জহির। এরপর তার বুকে ও হাতের কব্জিতে ক্রুশবিদ্ধ আঁকা হয়েছে। পরে তার গলায় ক্রুশবিদ্ধ লকেট পরিয়ে বাড়িতে পাঠানো হয় এবং এ ঘটনা কাউকে না জানানোর জন্য হুমকি দেয়া হয়েছে।


আরো সংবাদ

প্রদীপের অপকর্ম জেনে যাওয়ায় জীবন দিতে হয়েছে সিনহাকে? (২৬৬১১)পাকিস্তানের বোলিং তোপে লন্ডভন্ড ইংল্যান্ড (৬৫০৩)এসএসসির স্কোরের ভিত্তিতে কলেজে ভর্তি হবে শিক্ষার্থীরা (৪৫২৮)কানাডায়ও ঘাতক বাহিনী পাঠিয়েছিলেন মোহাম্মাদ বিন সালমান! (৪৪৮৪)বিশ্বের সবচেয়ে বড় মিথানল উৎপাদন কারখানা উদ্বোধন করল ইরান (৪০৯৯)অযোধ্যায় রামমন্দির নির্মাণ নিয়ে কড়া বিবৃতি পাকিস্তানের, যা বলছে ভারত (৪০৪৫)মেজর সিনহা হত্যা : ওসি প্রদীপ, ইন্সপেক্টর লিয়াকত আলীসহ ৭ পুলিশ বরখাস্ত (৩৬৫২)কক্সবাজারে সেনাবাহিনী ও পুলিশের যৌথ টহল চলবে : আইএসপিআর (৩৩৩২)যুক্তরাষ্ট্র নির্বাচন ২০২০ : কে এগিয়ে- ট্রাম্প না বাইডেন? (৩১০৫)প্রদীপসহ ৩ পুলিশ সদস্যের ৭ দিনের রিমান্ড (৩০৮৮)