২৬ মে ২০২০

মাছের রেণু পোনার সাথে গাঁজা পরিবহন, আটক ২

-

টঙ্গীতে মাছের রেণু পোনার সাথে গাঁজা পরিবহনের সময় দুই মাদক কারবারিকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১ এর সদস্যরা। শনিবার রাত ২টায় টঙ্গীর আরিচপুর কাজী মার্কেট এলাকা থেকে ৩০ কেজি গাঁজাসহ তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- মাইন উদ্দিন (২৫) ও শরিফুল (২৪)।

এ সময় মাদক পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত একটি মিনি ট্রাকসহ ১টি মোবাইল ফোন ও ৭হাজার টাকা জব্দ করা হয়।

র‌্যাব-১ অধিনায়ক লে. কর্ণেল মো: সারওয়ার বিন কাশেম এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানান, ‘রাত ২টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা জানতে পারি যে, ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে মাছের রেণু পোনাবাহী একটি মিনি ট্রাক মাদকের একটি চালান নিয়ে গাজীপুরের দিকে আসছে। এমন সংবাদে র‌্যাবের নজরদারি বৃদ্ধি করা হয়। অবশেষে গাজীপুর মহানগরীর টঙ্গী এলাকায় তাদের অবস্থান সনাক্ত করতে সক্ষম হয়। স্থানীয় কাজী মার্কেট মডার্ন ফার্নিচার মার্ট নামক দোকানের সামনে অভিযান চালিয়ে সংঘবদ্ধ মাদক চোরাকারবারী চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়।

র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে তারার জানায়, তারা একটি সংঘবদ্ধ মাদক চোরাচালানকারী চক্রের সক্রিয় সদস্য। এই চক্রটি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সীমান্তবর্তী এলাকা দিয়ে ভারত থেকে অবৈধভাবে চোরাচালানের মাধ্যমে গাঁজা নিয়ে আসে। এরপর গাঁজার চালানগুলো বিভিন্ন পণ্যবাহী ট্রাকে করে ঢাকাসহ সারাদেশে মাদক কারবারিদের কাছে খুচরা ও পাইকারী মূল্যে বিক্রি করে।

আসামি মাইন উদ্দিন জানায়, সে পেশায় একজন দর্জি। স্বল্প সময়ে অধিক অর্থ উপার্জনের লোভে দর্জির কাজ ছেড়ে মাদক কারবার শুরু করে। দীর্ঘদিন ধরে ঢাকার বিভিন্ন স্থানে মাদকের চালান সরবরাহ করে আসছিল। তাকে চালানপ্রতি ৫/৭ হাজার টাকা দেয়া হতো।

আসামি শরিফুল জানায়, সে পেশায় একজন ড্রাইভার। এই চক্রের সাথে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করে আসছে। মাইনের সহযোগিতায় মাদক কারবারি চক্রের সাথে যুক্ত হয়। সে ট্রাকে মাছের রেণু পোনা পরিবহনের আড়ালে কৌশলে মাদকদ্রব্য পরিবহন করে। চালান প্রতি তাকে ৮/১০ হাজার টাকা দেয়া হতো।’


আরো সংবাদ





maltepe evden eve nakliyat knight online indir hatay web tasarım ko cuce Friv gebze evden eve nakliyat buy Instagram likes buy Instagram likes cheap Adiyaman tutunu