গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠায় ১০ নভেম্বর গুরুত্বপূর্ণ দিন : শেখ হাসিনা

নয়া দিগন্ত অনলাইন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছন, গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশে ১০ নভেম্বর আন্দোলন-সংগ্রামের এক গুরুত্বপূর্ণ দিন। ১৯৮৭ সালের এই দিন যুবলীগ নেতা নূর হোসেনের রক্তে রঞ্জিত হয়েছিল ঢাকার রাজপথ।

আগামীকাল নূর হোসেন দিবস উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ বুধবার এক বাণীতে একথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, নূর হোসেন তাঁর বুকে-পিঠে ‘গণতন্ত্র মুক্তি পাক, স্বৈরাচার নিপাত যাক’ স্লোগান লিখে ১৯৮৭ সালের এই দিনে স্বৈরাচারবিরোধী গণ-আন্দোলনে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৫ দলীয় জোটের বিক্ষোভে যোগ দিয়েছিলেন।
তিনি বলেন, মিছিলটি যখন জিরো পয়েন্টে পৌঁছে, তখন স্বৈরাচার সরকারের নির্দেশে মিছিল লক্ষ্য করে গুলি বর্ষণ করা হয়। গুলিতে নূর হোসেনের বুক ঝাঁঝরা হয়ে যায়।

শেখ হাসিনা বলেন, এছাড়াও সেদিন যুবলীগের আরেক নেতা নূরুল হুদা ও কিশোরগঞ্জের বাজিতপুরের ক্ষেতমজুর নেতা আমিনুল হুদা টিটো শহিদ হন। তাঁদের এ আত্মত্যাগ স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে নতুন মাত্রা যোগ করে। আন্দোলন আরও বেগবান হয়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের সংগ্রামে বাবুল, ফাত্তাহসহ আরও নাম না-জানা অনেকে আত্মাহুতি দিয়েছেন। অবশেষে স্বৈরশাসকের পদত্যাগের মধ্য দিয়ে দেশে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার হয়। ভোট ও ভাতের অধিকার ফিরে পায় জনগণ।

বাণীতে তিনি নূর হোসেনসহ সকল শহিদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তাঁদের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.