২৯ মার্চ ২০২০

ব্রেক্সিট-পরবর্তী নতুন যুগে ব্রিটেন

-

৪৭ বছর পর ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে গেল ব্রিটেন। গণভোট অনুষ্ঠিত হওয়ার তিন বছরেরও বেশি সময় পর আনুষ্ঠানিকভাবে এ ব্রেক্সিট উদযাপনের একদিকে ছিল আনন্দ আর অপরদিকে ছিল বেদনার। ৩১ জানুয়ারি, শুক্রবার স্থানীয় সময় রাত ১১টায় প্রথম দেশ হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে ইইউ থেকে বের হয়ে গেল ব্রিটেন। ব্রেক্সিট সমর্থকদের ভাষায়, যুক্তরাজ্য এখন ‘স্বাধীন’ দেশ, ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের অংশ নয়, ইউরোপের মূলভূমি থেকে নিয়ন্ত্রণহীন অভিবাসন আর হবে না। ইইউর তহবিলে যুক্তরাজ্যকে শত শত কোটি পাউন্ড চাঁদা দিতে হবে না। যুক্তরাজ্য কোনো দেশের সাথে ব্যবসা-বাণিজ্য করবে তার ওপর ব্রাসেলসের খবরদারি থাকবে না। যুক্তরাজ্যের আইনের ওপর থাকবে না ইউরোপিয়ান কোর্ট অব জাস্টিসের কর্তৃত্ব। ব্রিটিশ জেলেরা তাদের সমুদ্রসীমায় ইচ্ছামতো মাছ ধরতে পারবে ইত্যাদি।
তবে এখনো সব কিছু আগের মতোই থাকবে, অন্তত এ বছরের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত। এর আগে ব্রিটেনের সাথে ইউরোপের ভবিষ্যৎ সম্পর্ক কী হবে তার চূড়ান্ত চুক্তি করতে হবে। আর তা ২০২১ সাল কার্যকর হবে। ব্রিটেনে ইউরোপিয়ান নানা দেশের লাখো নাগরিকের বসবাস। তেমনি ইউরোপের বিভিন্ন দেশে লাখ লাখ ব্রিটিশ নাগরিক বাস করেন। ব্রেক্সিটের কারণে ২০২১ সাল থেকে এই মানুষদের থাকা, কাজকর্ম করা, যাতায়াত থেকে শুরু করে বহু েেত্র নানা রকম সমস্যা ও ঝামেলা তৈরি হতে পারে, যার সমাধানের পথ তৈরি করতে দুই পকেই বসতে হবে আলোচনার টেবিলে।
২০২১ সালের মধ্যে ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে দেশটির বড় অর্থনৈতিক সহযোগীদের সাথে নতুন বাণিজ্য চুক্তির বিষয়ে তৎপর হতে হবে। এ বিষয়ে ব্যর্থ হলে এরই মধ্যে চাপে থাকা ব্রিটেনের অর্থনৈতিক সঙ্কট আরও ঘনীভূত হবে। ব্রিটেনের এখন নিজের পথে নিজেকেই চলতে হবে। প্রথমেই দেশটিকে ঠিক করতে হবে ইইউর সাথে সম্পর্কের সম্ভাব্য রূপরেখা। ব্রিটেনের রফতানি পণ্যের প্রায় অর্ধেকের ক্রেতা ইইউ হওয়ায় এ সম্পর্কের ওপর বহুলাংশে নির্ভর করছে দেশটির ভবিষ্যৎ অর্থনীতির ভাগ্য।
তা ছাড়া বহির্বিশ্বের সাথে ব্রিটেনের ভাবমূর্তি ও ব্যবসায়িক কার্যক্রম নিয়ে নতুন করে পরিকল্পনা করতে হবে জনসনকে। ইতোমধ্যেই দেশটি আফ্রিকান মিত্রদের নিয়ে লন্ডনে একটি সম্মেলনের আয়োজন করে। সেখানে আফ্রিকান দেশগুলোর সাথে দূরত্ব কমিয়ে বাণিজ্যিক ও কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদারে গুরুত্ব দেন বরিস।
একই সাথে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের মতো শক্তিশালী দেশের সাথেও নতুন বাণিজ্য চুক্তির জন্য মুখিয়ে আছেন। তবে এ েেত্র বিপদ হলো, ব্রিটেন যত বেশি ইইউ থেকে দূরে সরবে, ফ্রান্স ও জার্মানির মতো প্রতিবেশী দেশের সাথে বাণিজ্যের বিষয়ে দেশটিকে তত বেশি সমস্যায় পড়তে হবে। কারণ ব্রেক্সিট অনিশ্চয়তার কারণে বহু ব্রিটিশ কোম্পানি এরই মধ্যে তিগ্রস্ত হয়েছে। ফলে নতুন করে কোনো ধরনের বাণিজ্য প্রতিবন্ধকতা সামাল দেয়ার মতো অবস্থা তাদের নেই। তবে ব্রেক্সিটের শুরু থেকেই ভয়ে আছেন দেশটির ব্যবসায়ীরা। ব্রিটেন যদি ব্রাসেলসের সাথে নতুন বাণিজ্য চুক্তি না করে তাহলে দেশটিকে বড় ধরনের বাণিজ্য প্রতিবন্ধকতার মুখে পড়তে হবে। ব্রেক্সিট-পরবর্তী ভবিষ্যৎ নিয়ে উদ্বেগের মধ্যে রয়েছে ব্রিটেনে বিনিয়োগকারী বিভিন্ন কোম্পানি। আবার, দেশটির শীর্ষ কোম্পানির প্রধান নির্বাহীরা ব্রেক্সিটের ভয়াবহ অর্থনৈতিক পরিণতি নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন।
ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে আসার পর স্বাভাবিকভাবেই বেশ কিছু পরিবর্তন আসবে দেশটিতে। রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক পরিবর্তনের প্রভাব পড়বে ব্রিটিশদের জীবনযাত্রায়। যেমন, ইউরোপীয় পার্লামেন্টের সদস্যপদ হারাবেন ব্রিটেনের এমপিরা। ব্রিটেন থেকে ৭৩ জন সদস্য ছিলেন ইউরোপীয় পার্লামেন্টে। ব্রেক্সিট কার্যকর হওয়ার ফলে তারা তাদের সদস্যপদ হারাচ্ছেন। কারণ ব্রিটেন একই সাথে ইইউর রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠান ও এজেন্সিগুলোও ছেড়ে গেল। তবে যেহেতু ব্রিটেন অন্তর্বর্তী সময়ে ইইউর আইনকানুনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থাকতে চায়, সেহেতু ইউরোপিয়ান কোর্ট অব জাস্টিস আইনি সমস্যাগুলোর বিষয়ে চূড়ান্ত মতামত দেয়া অব্যাহত রাখবে। ভবিষ্যতে ইউরোপীয় ইউনিয়ন কাউন্সিল সামিটে ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন অংশ নিতে চাইলে তার জন্য বিশেষ আমন্ত্রণ প্রয়োজন হবে।
২০১৬ সালের গণভোটে ৫২ শতাংশ জনগণ ব্রেক্সিটের পে রায় দেয়ার পর ব্রিটিশ পার্লামেন্ট প্রথমে ২০১৯ সালের ৩১ মার্চের মধ্যে বিচ্ছেদ সম্পন্নের তারিখ ঠিক করেছিল; কিন্তু তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে’র সাথে ইইউর চুক্তি পার্লামেন্টে কয়েক দফা প্রত্যাখ্যাত হওয়ার পর ব্রেক্সিট কার্যকরের এ সময়সীমা বাড়ানো হয়। থেরেসা পরে দায়িত্ব ছেড়ে দিলে জনসন প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেন; কট্টর ব্রেক্সিটপন্থী হিসেবে পরিচিত এ টোরি নেতা কয়েক মাসের মধ্যে নতুন নির্বাচন ডাকেন। ডিসেম্বরের ভোটে বিপুল জনসমর্থন লাভের পর তার সাথে ইইউর চুক্তিটিও ব্রিটিশ পার্লামেন্টে অনুমোদিত হয়।


আরো সংবাদ

বৃদ্ধকে কান ধরে উঠবস করানো এসিল্যান্ডকে একহাত নিলেন আসিফ নজরুল (২৫১২২)করোনার বিরুদ্ধে লড়াকু ‘বীর’ চিকিৎসক যে ভয়াবহ বার্তা দিয়েই মারা গেলেন (২৪৫০৫)ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর করোনার খবরে পেছনের দরজা দিয়ে পালালেন উপদেষ্টা (ভিডিও) (১৪৩৬২)অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া আর নেই (১২১৬৭)মুক্ত খালেদা জিয়ার সাথে দেখা হলো না সানাউল্লাহর (৯৭৮৩)কান ধরে উঠবস করানো সেই এসিল্যান্ড প্রত্যাহার (৯৭০৬)করোনার ওষুধ আবিষ্কারের দাবি ডুয়েটের ৩ গবেষকের (৯১৭৪)প্রবাসীর স্ত্রীর পরকীয়ার বলি মেয়ে (৮৮৯৯)করোনার আক্রমণে করুণ অবস্থা যুক্তরাষ্ট্রের (৮৭৮৩)মোদি-যোগির রাজ্যে ক্ষুধার জ্বালায় ঘাস খাচ্ছে শিশুরা (৮৫৯৭)