০৬ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯, ৬ জিলহজ ১৪৪৩
`

কাঁঠালবৃত্তান্ত

কাঁঠালবৃত্তান্ত -

জানো, আমাদের জাতীয় ফল কাঁঠাল। এ ফলের উৎপত্তি স্থান কোথায়? বাংলাদেশ ও তার আশপাশের অঞ্চল । আমাদের দেশ, ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, আসাম, বিহার ও দক্ষিণ ভারত এবং মিয়ানমার, মালয়েশিয়া, শ্রীলঙ্কা প্রভৃতি দেশ ছাড়া বিশ্বের আর কোনো এলাকায় ব্যাপকভাবে কাঁঠালের চাষ হয় না। বর্তমানে ব্রাজিল ও ওয়েস্ট ইন্ডিজেও কাঁঠালের চাষ বেশ বেড়েছে। খাওয়া যায় এমন ফলের মধ্যে কাঁঠাল হচ্ছে সবচেয়ে বড়। এ ফল দামে সস্তা আর পুষ্টিকর। তাই অনেকে একে বলে গরিবের ফল।
এত সস্তায় এত পুষ্টি উপাদান অন্য কোনো ফলে পাওয়া যায় না। কী আছে কাঁঠালে? শর্করা, আমিষ, চর্বি, জলীয় অংশ, আঁশ, ফসফরাস, ক্যালসিয়াম, লৌহ, ভিটামিন-এ, পটাশিয়াম, থায়ামিন, ভিটামিন-সি, রাইবোফ্লাবিন ইত্যাদি কাঁঠালের পুষ্টি উপাদান।
কাঁঠাল কাঁচা ও পাকা উভয় অবস্থায়ই খাওয়া যায়। এ ফলের কোনো অংশই ফেলনা নয়; সবকিছুই ব্যবহার করা যায়। বসন্ত থেকে গ্রীষ্মকাল পর্যন্ত কাঁচা কাঁঠাল ‘ইচোড়’ সবজি হিসেবে খাওয়া যায়। অনেকে এটি সাধারণ সবজি হিসেবেও ব্যবহার করে, নিরামিষ তরকারি হিসেবে খায়। কেউ বা কাঁচা কাঁঠাল রান্না করে চিংড়ি মাছ দিয়ে, অনেকে এর সাথে ব্যবহার করে গরুর গোশত।
পাকা ফল বেশ পুষ্টিকর। তবে এর গন্ধ তেমন আকর্ষণীয় নয়। অম্লযুক্ত সুমিষ্টি স্বাদ ও স্বল্পমূল্যের জন্য অনেক এ ফল খুব পছন্দ করেন। কাঁঠালের বীচি তরকারির সাথে রান্না করে খাওয়া যায়, ভর্তা করে খাওয়া যায়, এমন কি পুড়িয়ে বাদামের মতোও খাওয়া যায়। পাকা ফলের কোষ বা রোয়া সাধারণত খাওয়া হয়।
তোমরা ইতোমধ্যেই জেনেছ, কাঁঠালের কোনো অংশই ফেলনা নয়। কাঁঠাল খাওয়া সম্পর্কেও তোমাদের ধারণা ও অভিজ্ঞতা হয়েছে, তাই না? তোমরা হয়তো শুনে থাকবে কঁাঁঠালের কোষ নিংড়ে রস বের করে তা শুকিয়ে ‘কাঁঠালস্বত্ব’ তৈরি করা যায়। কাঁঠালের তৈরি চিপস সম্পর্কেও তোমরা জেনে থাকবে। কাঁঠালের কোষের খোসা ও ভুতরো (অমরা) গবাদি পশুর উত্তম খাদ্য। ভুতরো ও ছোবড়ায় যথেষ্ট পেকটিন থাকে। এগুলো থেকে জেলি তৈরি করা যায। আশ্চর্য হলেও সত্যি, এ ফলের শাঁস বা পাল্প থেকে কাঁচা মধু আহরণ করা সম্ভব। কাঁঠালগাছের পাতা গবাদি পশুর মজাদার খাদ্য। কাঁঠাল গাছের কাঠ দিয়ে মূল্যবান আসবাবপত্র তৈরি করা হয়। তোমরা জেনে হয়তো অবাক হবে কাঁঠালের ফল ও গাছের আঁঠালো কষ কাঠের বা বিভিন্ন পাত্রের ছিদ্র বন্ধ করার কাজে ব্যবহার করা যায়।


আরো সংবাদ


premium cement