২৯ মে ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৭ শাওয়াল ১৪৪৩
`
নি ত্যো প ন্যা স

আকাশের ওপারে আকাশ

আকাশের ওপারে আকাশ -

আটানব্বই.

বাইরে বেরুতেই পেয়ে যায় কিশোরী ছায়াকে।
রিয়াজ বেলাল ও কিশোরী ছায়াকে সাথে নিয়ে ডাইনির জুতো ব্যবহার করে দ্রুত পায়ে সবার চোখ এড়িয়ে বন্দী রুম থেকে বাইরে বেরিয়ে আসে।
রিয়াজের পায়ে দ্রুতগামী জুতো এবং ছায়ারা দ্রুতগামী বলে তারা দ্রুত যেতে পারে। কিন্তু বেলালের কোনো অস্বাভাবিক ক্ষমতা না থাকায় সে পেরে ওঠে না।
ওদের সাথে তাল দিতে গিয়ে বেলাল হাঁপিয়ে ওঠে। কিন্তু সেও পরীরাজ্য ছেড়ে পালাতে চায়। আর সে ভালো করেই জানে একবার এদের সাথে সাথে বের হতে না পারলে আর সারা জীবনেও সে বের হতে পারবে না।
বাকসের ফাঁক গলিয়ে রিয়াজের ছায়া অনায়াসে বের হয়ে আসে। বের হয়ে একপলকেই পিছু নেয় ওদের।
রিয়াজ স্বগোক্তির মতো বলে, বেলাল ভাই তো আমাদেও সাথে হাঁটতে পারছে না। পিছিয়ে পড়ছে। কি করা যায়।
রিয়াজের পাশে থাকা রিয়াজের ছায়া বলে ওঠে , এক কাজ করো না হয়। আমি তোমার প্রক্সি দিতে পরীদের ওখানে গিয়ে ঘোরাঘুরি করি। ওরা আমাকে তুমি ভেবে আমাকে ধরতে ব্যস্ত হবে। ধরতে পারবে না। সেই ফাঁকে তোমরা দুষ্ট পরীরাজ্য থেকে বেরিয়ে যাও। তোমাদের দিকে কেউ খেয়াল করবে না।
রিয়াজ পাশে নিজের ছায়ার দিকে তাকিয়ে খুব অবাক হয়। আগে তাাড়াহুড়োয় ভালো করে দেখা হয়নি। নিজের ছায়ার সাথে কথা বলতে তার অদ্ভুত লাগে। কেউ যদি পাশাপাশি দাঁড়িয়ে নিজের সাথে নিজে কথা বলে তেমন।
ততক্ষণে বেলাল হাঁপাতে হাঁপাতে এসে দাঁড়িয়েছে রিয়াজের পাশে।
(চলবে)

 


আরো সংবাদ


premium cement