১৬ জানুয়ারি ২০২২, ০২ মাঘ ১৪২৮, ১২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩
`
নি ত্যো প ন্যা স

আকাশের ওপারে আকাশ

আকাশের ওপারে আকাশ -

ছিয়াত্তর.
কাকা বিষণ্ন গলায় তার বিশাল মাথাটা চুলকে বলল, ‘আমি যতদূর জানি আমাদের এখানে তো বর্তমানে ও ছাড়া আর কোনো রক্তমাংসের মানুষ নেই। পররাষ্ট্র দফতর তো আমার হাতে। কাজেই থাকলে তো সেটা অবশ্যই আমার জানার কথা। একটা মেয়েকে অবশ্য আমি আনতে চেয়েছিলাম। সেটা তো ওর মা হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই। সে মেয়েটা অবাবিবাহিত। আসতে রাজি হলো না। পরীরা যত সুন্দরই হোক পৃথিবীর মানুষ পৃথিবীর অসুন্দর মানুষকে ভালোবেসে তার সাথেই থাকতে চায়।
তিনজনে স্কুলের গেট থেকে পরীলয়ের রাস্তা ধরে হাঁটতে হাঁটতে কথা বলতে বলতে বাড়ির দিকে আসতে থাকে। পরীরাজ্যেও সূর্য অস্তমিত হওয়ার তালে ব্যস্ত। কিন্তু সন্ধ্যের আগমনেও এখানকার রাস্তায় কোনো ব্যস্ততা নেই। সবকিছু নিয়মমাফিক ঢিমেতেতালা একঘেয়ে।
তিতলী বলল ‘ঠিকই কাকা। আমাদের রাজ্যে ওর মা নেই সেটা ওও জানে। তবে ধারণা করছে যে, কফর নাগম রাজ্যে বন্দি অবস্থায় থাকতে পারে। সেখানেই খ্ুঁজতে যেতে চায় ও।
কাকা আঁতকে উঠে বলে, ‘কফর নাগমে যাওয়া তো ধরতে গেলে প্রায় অসম্ভব ব্যাপার। ওদের সাথে আমাদের রাষ্ট্রীয় সম্পর্ক চরম অবনতির দিকে। কয়েক দিন আগেও আমাদের দুজন ভালো পরীকে অসৎ পথে চালনা করার জন্য আমাদের সাথে ওদের পররাষ্ট্রীয় সম্পর্ক খারাপ হয়। আমরা অবশ্য সেই পরী দুজনকে উদ্ধার করে আনি। তারপর থেকে ওরা আমাদের রাজ্যে হানা না দিলেও ক্ষেপে আছে। এখান থেকে কেউ গেলে সে আর ফিরে আসবে না। তোমার মা যদি ওখানে থেকে থাকে তাহলে তার আশা ছেড়ে দিতে হবে। (চলবে)


আরো সংবাদ


premium cement