১৯ অক্টোবর ২০২১, ৩ কার্তিক ১৪২৮, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরি
`

ইস্তাম্বুলের নীল মসজিদ কাহিনী

-


আজ তোমরা জানবে নীল মসজিদ সম্পর্কে। সুলতান প্রথম আহমেদ নীল মসজিদ নির্মাণ করেন। লিখেছেন লোপাশ্রী আকন্দ আকন্দ


তুরস্কের নীল মসজিদের কথা বলছি। এ মসজিদ সম্পর্কে একটি মজার গল্প প্রচলিত আছে। সুলতান প্রথম আহমেদ চেয়েছিলেন মসজিদে একটি মিনার থাকবে, যা স্বর্ণনির্মিত হবে। তুর্কি ভাষায় আলতিন বলতে বোঝায় এক। সুলতান বলেছিলেন আলতিন আর স্থপতি শুনেছিলেন আলতি যার অর্থ ছয়। ছয় গম্বুজবিশিষ্ট মসজিদের নির্মাণকাজ শেষ হলে স্থপতি সুলতানের ভয়ে অস্থির হন। কারণ তিনি ভেবেছিলেন সুলতান হয় তো তার শিরñেদ করবেন। কিন্তু না, সুলতান ক্রুদ্ধ হলেন না। মসজিদ দেখে তিনি অভিভূত হলেন।
তুরস্কের সবচেয়ে বড় নগরী ইস্তাম্বুলের বিশেষ আকর্ষণ নীল মসজিদ। এর অপর নাম সুলতান আহমেদ মসজিদ। সুন্দর গম্বুজ ও আধা গম্বুজ, অপূর্ব আঙিনা এবং ছয়টি মিনারের সমন্বয়ে মসজিদ কমপ্লেক্স গঠিত।
সুলতান প্রথম আহমেদ নীল মসজিদ নির্মাণ করেন। মসজিদটির স্থপতি ছিলেন মাহমুদ আগা। ১৬০৯ সালে এ মসজিদের নির্মাণকাজ শুরু হয় এবং শেষ হয় ১৬১৬ সালে।
বিশাল জায়গাজুড়ে নীল মসজিদের অবস্থান। এ মসজিদের রয়েছে একটি দেয়ালঘেরা বড় আঙিনা। আঙিনায় কয়েকটি ফোয়ারা রয়েছে। এগুলোতে মুসল্লিরা অজু করেন। আঙিনার মাঝের ডান দিকে কয়েকটি মার্বেলের সিঁড়ি রয়েছে। মূল আঙিনায় ওঠার জন্য এগুলো ব্যবহৃত হয়। আঙিনায় ব্যবহৃত মার্বেল পাথরগুলো আনা হয়েছিল মর্মরা সাগরের একটি দ্বীপ থেকে।
মসজিদের গেটের কেন্দ্রে ১১-১২ শতকের সেলজুক তুর্কি আমলের জ্যামিতিক নকশা ব্যবহার করা হয়েছে।
মসজিদের অভ্যন্তরভাগের দৃষ্টিনন্দন অলঙ্করণ এবং এর অলঙ্কৃত ঝুলন্ত বাতির ঝাড় মানুষকে অভিভূত করে। অভ্যন্তরভাগে ব্যবহৃত প্রচুর নীল টালি অসাধারণ। এ নীল টালিগুলোর কারণেই মসজিদের নাম হয়েছে নীল মসজিদ।
এ মসজিদ দালানের গঠন প্রায় চতুর্ভুজাকার, যাকে ঢেকে আছে একটি গম্বুজ। এ গম্বুজের পরিধি প্রায় ৭৭ ফুট এবং এর উচ্চতা প্রায় ১৪০ ফুট। এ বড় গম্বুজ ছাড়াও দালানে রয়েছে কয়েকটি আধা গম্বুজ। দাঁড়িয়ে থাকা ১৬.৩ ফুট পরিধিবিশিষ্ট চারটি বিশাল স্তম্ভ মসজিদের ভার রক্ষা করার মূল হাতিয়ার।
নীল মসজিদে রয়েছে ২৬০টি জানালা। এগুলো দিয়ে অভ্যন্তরে সুন্দরভাবে সূর্যালোক প্রবেশ করতে পারে। জানালার পাল্লায় ব্যবহার করা হয়েছে ১৭ শতকের স্বচ্ছ রঙ মিশ্রিত কাচ। অবশ্য পরবর্তীকালে এ সুন্দর জানালাগুলোর সংস্কার করা হয়েছে।



আরো সংবাদ


সকল

মেয়ের চিকিৎসায় ১০ দিন ধরে ঢাকার হাসপাতালে থেকেও মন্দির ভাঙার আসামি (১২৯০৫)‘বাতিল হলো ঢাকা-চট্টগ্রাম এক্সপ্রেসওয়ে প্রকল্প’ (১২২০৬)প্রধানমন্ত্রী মোদি কি আগামী নির্বাচনে হেরে যাচ্ছেন বলে এখনই টের পেয়েছেন (৯৫৬৯)কাশ্মিরে নতুন করে উত্তেজনা ভারতের তালেবানভীতি থেকে? কেন সেই ভীতি? (৯৪১৪)কাশ্মিরে এক অভিযানে সর্বোচ্চ সংখ্যক ভারতীয় সেনা নিহত (৮০৩৮)৭২-এর সংবিধানে ফিরে যেতেই হবে : তথ্য প্রতিমন্ত্রী (৬৬০০)সঙ্কটের পথে রাজনীতি (৫৯৭৭)গ্রাহকদের উদ্দেশে কারাগার থেকে যা বললেন ইভ্যালির রাসেল (৪৮৯৫)পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবীর সরকারি ছুটি পুনর্নির্ধারণ (৪৮৬২)কিছু ‘বিভ্রান্তিকর খবরের’ পর বাংলাদেশের পদক্ষেপের প্রশংসা করেছে ভারত (৪৮২৯)