৩০ জুলাই ২০২১
`
নি ত্যো প ন্যা স

স্কুল ছুটির পর

-

ছেচল্লিশ.
এত রাতে ছেলের জরুরি কী ফোন তা জানা দরকার।
টিপুর কথা শেষ হতেই বাবা জিজ্ঞেস করলেন, ‘কি হয়েছে রে টিপু?
‘লটারির টিকিটের টাকা ডাকাতি হয়ে গেছে বাবা।’
বাবা লটারির টিকিট, তার টাকা কিছু বুঝতে পারলেন না। তিনি কিছু জিজ্ঞেস করার আগে টিপু বলল, ‘বাবা, আমাকে একটা জায়গায় ফোন করতে হবে।’
‘ঠিক আছে করো!’ বাবা গম্ভীর স্বরে বললেন।
রনিকে ফোন করতেই পাওয়া গেল। রনির নিজের মোবাইল আছে। ফোন ধরতেই টিপু বলল, ‘রনি সর্বনাশ হয়ে গেছে!’
‘কি সর্বনাশ?’
‘আমি তোরে বিকেলে লটারির টাকার কথা বলেছিলাম না? তিন ডাকাতের কথা। সেই লটারির টিকিটের টাকা ডাকাতি হয়ে গেছে। আমাদের যে করেই হোক ওই ডাকাত ধরতে হবে। মিঠুকে কিভাবে সংবাদ দেয়া যায়।’
রনি জানাল, ‘মিঠু আমাদের বাড়িতে আছে। আমার সাথে। নে কথা বল।’
মিঠুর সাথে কথা বলে টিপু বলল, ‘ডাকাত টাকা লুট করে কোন জায়গায় যাবে তার ধারণা করতে পারছি। তোরা কি আসতে পারবি? দরকার হলে বড় কাউকে সাথে নিয়ে?’
‘হু। চেষ্টা করে দেখছি। তুইও বের হ!’
টিপু মোবাইল বাবার হাতে দিয়ে পুরো ঘটনাটা খুলে বলল। শুধু ডাকাতের হাতে পিস্তল দেখেছিল তা জানাল না।
সব শুনেটুনে বাবা বললেন, ‘এই রাতে তো তোকে আমি একা ছাড়তে পারি না। দরকার পড়লে আমিই সাথে যাবো। (চলবে)

 



আরো সংবাদ