৩০ জুলাই ২০২১
`

ঘরে ঢুকে নারীসহ ৫ জনকে কুপিয়ে আহত : ৩ মাসেও গ্রেফতার হয়নি আসামি

ভুক্তভোগী পরিবারের সংবাদ সম্মেলন। - ছবি : নয়া দিগন্ত

রাতের আধারে ঘরে ঢুকে নারীসহ পাঁচজনকে কুপিয়ে আহত করার তিন মাস পার হলেও একজন আসামিকেও গ্রেফতার করেনি পুলিশ। আসামিরা বীরদর্পে এলাকায় থেকে এখন মামলা তুলে নিতে ভুক্তভোগী পরিবারকে হত্যার হুমকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে।

শুক্রবার সকালে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ করেছেন ময়মনসিংহের গৌরিপুর থানার পাছার (মানিকরাজ) গ্রামের সাইদুল ইসলাম ও তার পরিবার।

লিখিত বক্তব্যে সাইদুল ইসলামের পক্ষে আইনুল বলেন, গত ২৪ মার্চ রাত ১০টার দিকে স্থানীয় হাসেমের নেতৃত্বে মাহবুব, মনজুরুল হক, ফজলু, নাজমুল, মনি আক্তার ও বজলুসহ আরো ৪/৫ জন তাদের বাড়িতে আতর্কিত হামলা চালায়। তারা রামদা দিয়ে কুপিয়ে ঘরের বেড়া কেটে ভেতরে প্রবেশ করে। এরপর ঘুমন্ত অবস্থায় আব্দুল জব্বারকে কোপাতে থাকে। তার চিৎকারে ছোট ভাই আবদুল মান্নান ছুটে এলে তাকেও কোপাতে থাকে। এরপর জব্বারের স্ত্রী মিনা বেগম ও তদের দুই ছেলে নুরুল আমিন ও নজরুলকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে গুরুতর আহত করে।

আহতদের চিৎকারে প্রতিবেশী খায়রুল, শিরিন, সুহেদাসহ অন্যরা ছুটে এলে দুর্বৃত্তরা চলে যায়। পরে আহতদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে ভাই নজরুল ও মান্নানকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ও পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এই ঘটনায় গৌরিপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। কিন্তু গত তিন মাস পার হলেও পুলিশ একজন আসামিকেও গ্রেফতার করেনি। গ্রেফতারের বিষয়ে কথা বলতে গেলেই পুলিশ তাদের খুঁজে পায় না বলে জানায়। অথচ আসামিরা বীরদর্পে এলাকায় থেকে এখন মামলা তুলে নেয়ার জন্য হত্যার হুমকি দিয়ে আসছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মামলার আইও গৌরিপুর থানার এসআই শামসুল ইসলাম বলেন, মামলার দুইজন আসামি আগাম জামিন নিয়ে এসেছেন। বাকিদের খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। তবে আমরা আসামিদের ধরতে চেষ্টা করছি।



আরো সংবাদ