০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ন ১৪২৯, ৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

কাল থেকে ওয়ানডে সিরিজ শুরু করছে ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা

-

আগামীকাল বৃহস্পতিবার থেকে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ শুরু করছে স্বাগতিক ভারত ও সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকা। এ মাসেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থাকায় দ্বিতীয় সারির দল মাঠে নামাচ্ছে ভারত। তবে শক্তিশালী দল নিয়েই সিরিজ খেলতে নামছে দক্ষিণ আফ্রিকা।

সিরিজটি বিশ্বকাপ সুপার লীগের অংশ না হলেও জয়ই প্রধান লক্ষ্য দু’দলের। লখনৌতে আগামীকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ২টায় শুরু হবে সিরিজের প্রথম ওয়ানডে।

ওয়ানডের আগে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলেছে ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা। সিরিজটি ২-১ ব্যবধানে জিতে ভারত। এবার ওয়ানডে লড়াইয়ে নামছে দু’দল।

আগামী ১৬ অক্টোবর থেকে শুরু হচ্ছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। তাই সিনিয়র ও অভিজ্ঞদের ওয়ানডে সিরিজের দলে রাখেনি ভারত। তারুণ্যনির্ভর ওয়ানডে দল নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে খেলতে নামবে ভারত। আর কালই বিশ্বকাপের জন্য অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশে দেশ ছাড়বে ভারতীয় দল।

ঘরের মাঠে ওয়ানডে সিরিজে ভারতকে নেতৃত্ব দিবেন অভিজ্ঞ শিখর ধাওয়ান। তার ডেপুটি হিসেবে কাজ করবেন শ্রেয়াস আইয়ার। গত জুলাইয়ে সিনিয়রদের অনুপস্থিতিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে ৩-০ ব্যাধানে জয় পাওয়া তিন ম্যাচের সিরিজে ভারতকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন ধাওয়ান।

এই সিরিজে প্রথমবারের মতো জাতীয় দলে সুযোগ হয়েছে ব্যাটার রজত পাতিদার ও পেসার মুকেশ কুমারের।
দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের দলে রাখা হয়েছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে রিজার্ভ তালিকায় থাকা তিন ক্রিকেটারকে। এরা হলেন- আইয়ার, দীপক চাহার ও বিষ্ণোই।

তারুণ্যনির্ভর দল নিয়েই সিরিজ জয়ের কথা জানালেন ধাওয়ান, ‘আমাদের এই দলটিও অনেক বেশি ভারসাম্যপূর্ণ। আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া ক্রিকেটে অনেক ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা আছে খেলোয়াড়দের। নিজেদের প্রমাণের এটিই ভালো সুযোগ। দক্ষিণ আফ্রিকা শক্তিশালী দল। নিজেদের সেরাটা খেলতে পারলে, সিরিজ জয় সম্ভব হবে।’

ভারতের বিপক্ষে প্রথম দু’টি টি-টোয়েন্টিতে ভালো করতে না পারলেও, শেষ ম্যাচে দাপুটে জয় পায় দক্ষিণ আফ্রিকা। রিলি রুশোর সেঞ্চুরিতে ৪৯ রানের জয়ে হোয়াইটওয়াশ এড়ায় প্রোটিয়ারা।

গত জানুয়ারিতে ঘরের মাঠে ভারতের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে টিম ইন্ডিয়াকে হোয়াইটওয়াশ করেছিল প্রোটিয়ারা।

এবার ভারতের মাটিতে খেলতে হবে দক্ষিণ আফ্রিকাকে। সিরিজটি চ্যালেঞ্জিং হবে বলে মনে করেন প্রোটিয়া অধিনায়ক তেম্বা বাভুমা। তিনি বলেন, ‘ভারতের প্রথম সারির অনেক ক্রিকেটারই এই সিরিজে নেই। তবে যারা আছে, তারাও ভালো খেলার সামর্থ্য রাখে। তাই এমন দলের বিপক্ষে খেলতে হলেও আমাদের চ্যালেঞ্জের মুখেই পড়তে হবে। আমরা প্রস্তুত, সিরিজ জয়ের লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নামবো।’

এখন পর্যন্ত ৮৭ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা। এরমধ্যে ভারতের জয় ৩৫টিতে ও প্রোটিয়াদের জয় ৪৯টিতে।

রাঁচি ও দিল্লিতে সিরিজের বাকি দুই ম্যাচ হবে যথাক্রমে ৯ ও ১১ অক্টোবর।

ভারত দল
শিখর ধাওয়ান (অধিনায়ক), শ্রেয়াস আইয়ার (সহ-অধিনায়ক), ঋতুরাজ গায়কোয়াড়, শুভমান গিল, রজত পাতিদার, রাহুল ত্রিপাঠি, ইশান কিশান (উইকেটরক্ষক), সঞ্জু স্যামসন (উইকেটরক্ষক), শাহবাজ আহমেদ, শারদুল ঠাকুর, কুলদীপ যাদব, রবি বিষ্ণই, মুকেশ কুমার, আবেশ খান, মোহাম্মদ সিরাজ ও দীপক চাহার।

দক্ষিণ আফ্রিকার দল
তেম্বা বাভুমা (অধিনায়ক), কুইন্টন ডি কক (উইকেটরক্ষক), রেজা হেনডিক্স, হেনরিচ ক্লাসেন, কেশব মহারাজ, জানেমান মালান, আইডেন মার্করাম, ডেভিড মিলার, লুঙ্গি এনগিদি, এনরিচ নর্টি, ওয়েন পার্নেল, আন্দিলে ফেলুকুয়াও, ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস, কাগিসো রাবাদা ও তাবরাইস শামসি।

সূত্র : বাসস


আরো সংবাদ


premium cement