২৬ নভেম্বর ২০২২, ১১ অগ্রহায়ন ১৪২৯, ১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

গোটা দলের বোঝা একা বইছেন রিজওয়ান!

গোটা দলের বোঝা একা বইছেন রিজওয়ান! - ছবি : সংগৃহীত

আন্তর্জাতিক টি-২০ ক্রিকেটে গত কয়েক বছরে সবচেয়ে ধারাবাহিক ব্যাটসম্যানদের তালিকা তৈরি করলে নিশ্চিতভাবেই মোহাম্মদ রিজওয়ানের নাম থাকবে সবার ওপরে। ব্যাট হাতে তারকা ওপেনারের ধারাবিহকতার সুফল পাচ্ছে পাকিস্তান। তবে প্রশ্ন থেকেই যায় যে আর কত দিন রিজওয়ানের সাফল্যের আড়ালে নিজেদের ব্যর্থতাকে লুকিয়ে রাখবেন পাকিস্তানের বাকি ব্যাটসম্যানরা?

এশিয়া কাপে আগাগোড়া দলকে ব্যাট হাতে নির্ভরতা দিয়েছেন রিজওয়ান। এবার ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে চলতি টি-২০ সিরিজে কার্যত একার কাঁধে দলের বোঝা বয়ে বেড়াচ্ছেন তিনি। সিরিজের ৫টি ম্যাচে ব্যাট করতে নেমে এই নিয়ে চার নম্বর হাফ-সেঞ্চুরি করলেন রিজওয়ান। তার অনবদ্য ব্যাটিংয়ের সুবাদেই বুধবার লাহোরে লড়াই করার রসদ পায় পাকিস্তান। শেষমেশ কম রানের পুঁজি নিয়েও ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজের পঞ্চম ম্যাচে উত্তেজক জয় ছিনিয়ে নেয় পাকিস্তান। সেই সাথে ৩-২ ব্যবধানে সিরিজে এগিয়ে যান বাবর আজমরা।

সিরিজের পঞ্চম ম্যাচের গতিপ্রকৃতি :
টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামে পাকিস্তান। তারা ১৯ ওভারে ১৪৫ রানে অল-আউট হয়ে যায়। মোহাম্মদ রিজওয়ান ২টি চার ও ৩টি ছক্কার সাহায্যে ৪৬ বলে ৬৩ রান করে আউট হন। বাকিরা কেউই বলার মতো রান করতে পারেননি।

বাবর আজম ৯, শান মাসুদ ৭, হায়দার আলি ৭, ইফতিকার আহমেদ ১৫, আসিফ আলি ৫, মহম্মদ নওয়াজ ০, শাদব খান ৭, আমের জামাল ১০, মোহাম্মদ ওয়াসিম ৬ ও হারিস রউফ ৮ রান করেন। মার্ক উড ৩টি এবং স্যাম কারান ও ডেভিড উইলি ২টি করে উইকেট নেন। ১টি উইকেট পকেটে পোরেন ক্রিস ওকস।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ইংল্যান্ড ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৩৯ রানে আটকে যায়। ৬ রানের সংক্ষিপ্ত ব্যবধানে ম্যাচ জেতে পাকিস্তান। উল্লেখযোগ্য বিষয় হলো, পাকিস্তানের মাটিতে আন্তর্জাতিক টি-২০ ক্রিকেটে এটিই কোনো দলের সবচেয়ে কম রানের ইনিংস গড়ে (প্রথম ব্যাট করে) ম্যাচ জয়ের রেকর্ড।

মইন আলি দুর্দান্ত হাফ-সেঞ্চুরি করে ইংল্যান্ডকে জেতানোর চেষ্টা করেন। তবে যথেষ্ট ছিল না তার একক প্রচেষ্টা। মইন ২টি চার ও ৪টি ছক্কার সাহায্যে ৩৭ বলে ৫১ রান করে নট-আউট থাকেন। এছাড়া ডেভিড মালান ৩৬, বেন ডাকেট ১০, স্যাম কারান ১৭ ও ক্রিস ওকস ১০ রান করেন। হারিস রউফ ২টি উইকেট নেন। ১টি করে উইকেট দখল করেন মোহাম্মদ নওয়াজ, মোহাম্মদ ওয়াসিম, শাদব খান, ইফতিকার আহমেদ ও আমের জামাল। সঙ্গত কারণেই ম্যাচের সেরা ক্রিকেটারের পুরস্কার জেতেন রিজওয়ান।

পাকিস্তান-ইংল্যান্ড সিরিজে রিজওয়ানের পারফর্ম্যান্স
১. প্রথম ম্যাচে ৬৮ রান
২. দ্বিতীয় ম্যাচে অপরাজিত ৮৮ রান
৩. তৃতীয় ম্যাচে ৮ রান
৪. চতুর্থ ম্যাচে ৮৮ রান
৫. পঞ্চম ম্যাচে ৬৩ রান।
সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস


আরো সংবাদ


premium cement

সকল