৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯, ৩ রবিউল আওয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ঘাম ঝড়িয়ে জিতলো পাকিস্তান

বড় স্কোর গড়ায় ফখর জামানকে সঙ্গ দিয়েছেন অধিনায়ক বাবর আজম - ছবি : পিসিবি

ওপেনার ফখর জামানের সেঞ্চুরিতে ৩১৪ রান করেও নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ঘাম ঝড়িয়ে জিততে হলো পাকিস্তানকে। সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ১৬ রানের জয় পায় পাকিস্তান। এতে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল বাবর আজমের দল।

মঙ্গলবার রাতে রটারডামে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে পাকিস্তান। ষষ্ঠ ওভারে ইমাম উল হক ব্যক্তিগত ২ রানে থামলেও, দ্বিতীয় উইকেটে পাকিস্তানকে বড় স্কোর গড়ার পথ তৈরি করে দেন আরেক ওপেনার ফখর জামান ও অধিনায়ক বাবর আজম। ১৭০ বলে ১৬৮ রানের জুটি গড়েন তারা। ৭৪ রান তুলে ফিরেন বাবর।

তবে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের সপ্তম সেঞ্চুরি তুলে নেন জামান। সেঞ্চুরির পর বেশি দূর যেতে পারেননি তিনি। ১০৯ বল খেলে ১২টি চার ও ১টি ছক্কায় ১০৯ রান করেন জামান।

৩৭তম ওভারে ও দলীয় ১৯৬ রানে জামান আউট হওয়ার পর ব্যাট হাতে সুবিধা করতে পারেননি মিডল-অর্ডার ব্যাটাররা। মোহাম্মদ রিজওয়ান ১৪, খুশদিল শাহ ২১ ও মোহাম্মদ নাওয়াজ ৪ রান করে ফিরেন।

তবে সপ্তম উইকেটে ২৫ বলে অবিচ্ছিন্ন ৪৮ রান যোগ করে পাকিস্তানের স্কোর ৩০০ পার করেন শাদাব খান ও আঘা সালমান। শেষ পর্যন্ত ৫০ ওভারে ৬ উইকেটে ৩১৪ রান করে পাকিস্তান। ৪টি চার ও ২টি ছক্কায় ২৮ বলে অপরাজিত ৪৮ রান করেন শাদাব। ১৬ বলে অনবদ্য ২৭ রান করেন সালমান।

নেদারল্যান্ডসের বাস ডি লিডে ও ভ্যান বিক ২টি করে উইকেট নেন।

নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে এটিই সর্বোচ্চ দলীয় রান পাকিস্তানের।

পাকিস্তানের ছুড়ে দেয়া ৩১৫ রানের টার্গেট স্পর্শ করতে নিজেদের ওয়ানডে ক্রিকেটে রেকর্ড গড়তে হতো নেদারল্যান্ডসকে। সেই লক্ষ্যে ৬২ রানেই ৩ উইকেট হারিয়ে লড়াই থেকে ছিটকে পড়েছিল নেদারল্যান্ডস।

তবে চতুর্থ উইকেটে ওপেনার বিক্রমজিত সিং ও টম কুপারের ১০৯ বলে ৯৭ রানের জুটিতে লড়াইয়ে ফিরে নেদারল্যান্ডস। দু’জনই হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ নেন। কিন্তু দলীয় ১৫৯ ও ১৬৭ রানে বিক্রমজিত-কুপারকে শিকার করে পাকিস্তানকে খেলায় ফেরান মোহাম্মদ নাওয়াজ-হারিস রউফ। বিক্রমজিত-কুপার, ৬৫ রান করে করেন।

এরপর ষষ্ঠ ও সপ্তম উইকেটে জুটি বেঁধে নেদারল্যান্ডসকে ৯৫ বলে ১১৩ রান এনে দেন অধিনায়ক স্কট এডওয়ার্ডস-তেজা নিদামানুরু ও বিক। এতে ম্যাচ জয়ের কিঞ্চিৎ সম্ভাবনা জাগে ডাচদের। শেষ ৫ ওভারে ৫৯ রান দরকার পড়ে নেদারল্যান্ডসের। কিন্তু শেষ দিকে, পাকিস্তানের বোলারদের বিপক্ষে ঝড়ো গতিতে রান তুলতে পারেনি নেদারল্যান্ডসের ব্যাটাররা। তাই ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ২৯৮ রান পর্যন্ত যেতে পারে তারা।

এডওয়ার্ডসের ৬০ বলে অপরাজিত ৭১ রান শেষ পর্যন্ত বৃথাই যায়। পাকিস্তানের রউফ-নাসিম শাহ ৩টি করে উইকেট নেন। ম্যাচ সেরা হন জামান।

সিরিজটি বিশ্বকাপ সুপার লিগের অংশ হওয়াতে এই জয়ে ১০ পয়েন্ট পেল পাকিস্তান। এতে ১৬ ম্যাচ শেষে ১০০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের চতুর্থ স্থানে আছে তারা। আর ১৭ ম্যাচে ২৫ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তলানিতেই আছেন নেদারল্যান্ডস।

বৃহস্পতিবার একই ভেন্যুতে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে অনুষ্ঠিত হবে।

সূত্র : বাসস


আরো সংবাদ


premium cement
বিএনপির দুর্নীতি-দুঃশাসন বিদেশীদের কাছে তুলে ধরতে হবে : প্রধানমন্ত্রী ইরানের তেল রফতানিতে ফের যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা কলাবাগানে গ্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে কিশোর নিহত ইরানে গুপ্তচর নিয়োগ দিয়ে তাদের রক্ষা করার ব্যবস্থা নেয়নি সিআইএ অবসরের পরও অস্ত্রধারী পুলিশের নিরাপত্তা পাবেন বেনজীর বিমানের ইঞ্জিনে পাখি, ভোগান্তিতে সৌদিগামী যাত্রীরা ইউক্রেনে রুশ দখলদারিত্বকে স্বীকৃতি দেবে না যুক্তরাষ্ট্র : বাইডেন ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে দেশ ছাড়ছে টাইগাররা বন্ধ হচ্ছে বিবিসি বাংলার রেডিও সার্ভিস ৬০ কি.মি. বেগে ঝড় হতে পারে রাজধানীসহ ১৫ জেলায় করতোয়ার নৌকাডুবি : ৬ষ্ঠ দিনেও চলছে উদ্ধার অভিযান

সকল