১৩ আগস্ট ২০২২
`

বোর্ডের সাহায্য চান জটিল রোগে আক্রান্ত সেই পাকিস্তানি উইকেটকিপার

অসুস্থতার আগে (বামে) ও পরে। - ছবি : সংগৃহীত

পেটের জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে বর্তমানে শয্যাশায়ী পাকিস্তানের সাবেক উইকেটকিপার ব্যাটার জুলকারনাইন হায়দার (৩৬)। অপারেশনের পর তিনি এখন অনেকটাই দুর্বল হয়ে পড়েছেন; ঠিকমতো হাঁটাচলাও করতে পারছেন না তিনি। এই মুহূর্তে তার উন্নত চিকিৎসা দরকার কিন্তু বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে অর্থ; তার কাছে তা পর্যাপ্ত পরিমাণ নেই।

বুধবার জিও নিউজ জানায়, এ পরিস্থিতিতে জুলকারনাইন আশা করছেন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) তার চিকিৎসা খরচ বহন করবে। একইসাথে তার পরিবার বোর্ডের কাছে দাবি করেছে, সুস্থ হওয়ার পর ক্রীড়া ক্ষেত্রে বোর্ড তাকে যেন একটা স্থায়ী চাকরিরও ব্যবস্থা করে দেয়।

জুলকারনাইন হায়দার ২০১০ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে দলকে বিদায় জানিয়ে ইংল্যান্ড চলে যান। এরপর থেকেই তার ক্যারিয়ার দ্যোদুল্যমান অবস্থায় রয়েছে। এ সময়ের মধ্যে ঘরোয়া ক্রিকেট খেললেও পাকিস্তান জাতীয় দলের দরজা তার সামনে আর উন্মুক্ত হয়নি। পরে ঘরোয়া ক্রিকেট খেলা ছেড়ে দিয়ে বিদেশী লিগগুলো খেলতে থাকেন।

গত দুই সপ্তাহ আগে তিনি ওমানে একটি লিগে খেলায় ব্যস্ত ছিলেন। এ সময়-ই তার পেটে মারাত্মক ইনফেকশন হয়। সেখানে চিকিৎসা খরচ বেশি হওয়ায় বেশ কষ্ট সত্ত্বেও চলে আসেন পাকিস্তানে এবং লাহোরের একটি হাসপাতালে অপারেশন করান।

কিন্তু কেন এই ইনফেকশন?
এ প্রসঙ্গে জুলকারনাইন হায়দার বলেন, ওমানে বাসি খাবার খেয়ে মারাত্মক ইনফেকশন হয়। পরে পেটে আঘাত লাগার ফলে তাতে রাসায়নিক ছড়িয়ে পড়ে অবস্থা আরো জটিল হয়ে ওঠে। সেখানে চিকিৎসাভার বহনের সামর্থ্য আমার ছিল না, তাই দেশে এসে লাহোরে অপারেশন করাই।

তিনি আরো বলেন, এরমধ্যে আমি পিসিবির সাথে যোগাযোগ করি। তারা আমাকে একটি টিম হাসপাতালে পাঠায়। বোর্ড আমাকে জানিয়েছে, তারা আমার চিকিৎসা খরচ বহনে সহায়তা করবে। আমি আশাবাদী- খুব শিগগির-ই তারা আমার বিল পরিশোধ করে দেবে। এটা আমার অধিকার।

জুলকারনাইন হায়দারের মেয়ের আবেদন
জুলকারনাইন হায়দারের মেয়ে বলেন, আমার বাবা এখনো ক্রিকেটের সাথেই সম্পৃক্ত। তার এখন স্থায়ী চাকরি দরকার। তিনি আর এখন দেশের বাইরে গিয়ে খেলতে পারবেন না। আমরা চাই- তিনি আমাদের সাথেই থাকেন- যাতে আমরা তার দেখাশোনা করতে পারি।

সূত্র : জিও নিউজ


আরো সংবাদ


premium cement