০৪ জুলাই ২০২২, ২০ আষাঢ় ১৪২৯, ৪ জিলহজ ১৪৪৩
`

সিঙ্গাপুরে সালমান বাটের নতুন জীবন

সালমান বাট। - ফাইল ছবি

ম্যাচ ফিক্সিংয়ের দায়ে শাস্তি পেয়ে ফিরে এসেছেন। স্বপ্ন ছিল আবার খেলবেন পাকিস্তানের জার্সি গায়ে। তবে সেটি বাস্তবায়ন করতে পারেননি। বরং খেলোয়াড়ি জীবনের পরের ধাপ; কোচিংয়ে নাম লেখালেন সাবেক পাক ওপেনার সালমান বাট। সিঙ্গাপুর জাতীয় ক্রিকেট দলের হেড কোচের দায়িত্ব পেয়েছেন তিনি।

রোববার ইএসপিএনক্রিকইনফো এই তথ্য নিশ্চিত করে। ক্রিকইনফো জানায়, ২০২২ সালের জন্য তাকে এই দায়িত্ব দিয়েছে সিঙ্গাপুর ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন। দলটির ফিল্ডিং কোচ হিসেবে দায়িত্বে থাকা জামাল হুসাইন ও স্থানীয় সাপোর্ট স্টাফরা বাটের কাজে সহায়তা করবেন।

সিঙ্গাপুর ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সাদ জানজুয়া জানান, পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক সালমান এখন থেকে সিঙ্গাপুরেই থাকবেন এবং দলের সাথে কাজ করবেন।

আগামী পাঁচ মাসের মধ্যে আইসিসির বড় আসরগুলোর মধ্যে অন্তত একটিতে নিয়মিত খেলার তাগিদে সালমানের মেয়াদে মোট তিনটি বড় টুর্নামেন্ট খেলবে ১৯৭৪ সাল থেকে আইসিসির সহযোগী দেশ হিসেবে থাকা সিঙ্গাপুর।

আগামী জুলাইয়ে জিম্বাবুয়েতে আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব খেলবে সিঙ্গাপুর। এরপরের মাসেই শ্রীলঙ্কায় এশিয়া কাপ বাছাইপর্ব খেলবে তারা। তারপর কানাডায় আইসিসি পুরুষ চ্যালেঞ্জ লিগ ‘এ’-তে অংশ নেবে সিঙ্গাপুর।

২০১০ সালে স্পট ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ হন সালমান। ২০১৬ সালে পুনরায় ক্রিকেটে ফেরেন তিনি। ২০২০ সালে খেলোয়াড়ি জীবন শেষ হয় তার। কোচ হিসেবে এটিই হবে সালমানের প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট।

৩৭ বছর বয়সী সালমান বাট ৩৩টি টেস্ট, ৭৮টি ওয়ানডে এবং ২৪টি টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তানের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। যথাক্রমে ১৮৮৯, ২৭২৫, ৫৯৫ রান করেন। তিন ফরম্যাট মিলিয়ে ১১টি সেঞ্চুরি ও ২৮টি হাফসেঞ্চুরিও আছে সাবেক এ ওপেনারের। ২০১০ সালে স্পট-ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে পাঁচ বছরের নিষেধাজ্ঞায় পড়েন। পরে আর কখনো জাতীয় দলে ফিরতে পারেননি।

সূত্র : এক্সপ্রেস নিউজ


আরো সংবাদ


premium cement