১৭ জানুয়ারি ২০২২, ০৩ মাঘ ১৪২৮, ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩
`

ক্রিজ থেকে হাসপাতালে ইয়াসির

ইয়াসির আলি - ক্রিকইনফো

দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশকে স্বপ্ন দেখাচ্ছিলেন লিটন-ইয়াসির। সেই স্বপ্ন ভেঙে গেল। রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে হাসপাতালে ইয়াসির আলি।

ম্যাচের ৩০তম ওভারের পঞ্চম বলটি শট লেন্থে করেছিলেন শাহিন। প্রচণ্ড গতির বলটিকে ডাক করে মাথার ওপর দিয়ে চলে যেতে দিয়েছিলেন ইয়াসির। কিন্তু শেষ মুহূর্তে বলের লাইন থেকে সরে যেতে পারেননি ইয়াসির। বল গিয়ে সোজা আঘাত হানে রাব্বির হেলমেটে, চোখের কোনের কাছে।

পরে কিছু সময় ক্রিজে থাকলেও মাথার যন্ত্রণায় টিকতে না পেরে শেষ পর্যন্ত মাঠের বাইরেই চলে যেতে বাধ্য হন ইয়াসির।

বিসিবি সূত্রে জানা গেছে, স্ক‍্যানের জন‍্য তাকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে হাসপাতালে। তার জায়গায় কনকাশন সাব হিসেবে কিপার-ব‍্যাটসম‍্যান নুরুল হাসান সোহানকে নিয়েছে বাংলাদেশ।

এর আগে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই দুর্দশার মধ্যে ছিল বাংলাদেশ। দলীয় ১৪ রানে হারায় দুই উইকেট। এরপর দিনশেষে সংগ্রহ ৪ উইকেটে ৩৯ রান থাকলেও দিনের শুরুতে মুশফিককে হারায় বাংলাদেশ। ব্যাটে ছিলেন লিটন-ইয়াসির। তাদেরকে নিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন দেখছিল বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংসে ১২ বলে এক রান করে শাহিনের বলে বিদায় নেন ওপেনার সাদমান। পরের বলেই আউট নাজমুল হোসেন শান্ত (০)। দলীয় ১৫ রানে ডাক মারেন অধিনায়ক মুমিনুল হক। হাসান আলীর বলে তিনি ক্যাচ দেন আজহারের কাছে।

প্রথম ইনিংসে বাজে খেলা সাইফ হাসান থিতু হওয়ার চেষ্টা করলেও পারেননি। ৩৪ বলে ১৮ রানে শাহিনের বলে তার কাছেই ক্যাচ দেন তিনি। তার ইনিংসে ছিল তিনটি চারের মার।

সেখান থেকে পঞ্চম উইকেটে মুশফিক ও অভিষিক্ত ইয়াসির আলী দলকে বিপদমুক্ত করার চেষ্টা করেন। দিন শেষে তাদের অবিচ্ছিন্ন জুটি কিছুটা হলেও স্বস্তি দিয়েছে। ১২ রানে মুশফিক ও ৮ রানে ইয়াসির আলী অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন।

এর আগে ২৮৬ রানে গুটিয়ে যায় পাকিস্তানের প্রথম ইনিংস। রোববার তৃতীয় দিনের খেলায় তাইজুলের বোলিং ঘূর্ণিতে দিশেহারা হয়ে পড়ে পাকিস্তান। তাইজুল ইসলাম তুলে নেন ৭ উইকেট। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের লিড ছিল ৪৪।

রোববার দিনের প্রথম সেশনে ৩১ ওভার বোলিং করে মাত্র ৫৮ রানেই পাকিস্তানের ৩ উইকেট তুলে নেন তাইজুল ইসলাম। মেহেদি হাসান মিরাজ নেন ১ উইকেট। দ্বিতীয় সেশনে তাইজুল তুলে নেন আরো ৪ উইকেট। সব মিলিয়ে তাইজুলের শিকার ৭ উইকেট। অন্য উইকেট দুটি নিয়েছেনে এবাদত হোসেন।

রোববার মধ্যাহ্ন বিরতি পর্যন্ত পাকিস্তানের সংগ্রহ ছিল ৪ উইকেটে ২০৩ রান। সেঞ্চুরিয়ান আবিদ ১২৭ ও ছয় নম্বরে নামা মোহাম্মদ রিজওয়ান ৫ রানে অপরাজিত ছিলেন।

এর আগে প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় দিন শেষে ব্যাট হাতে পাকিস্তান করে বিনা উইকেটে ১৪৫ রান। তার আগে ব্যাট হাতে দাপট দেখানো বাংলাদেশ গুটিয়ে যায় ৩৩০ রানে।

প্রথম দিন শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ছিল ৪ উইকেটে ২৫৩ রান। ক্রিজে অপরাজিত ছিলেন সেঞ্চুরিয়ান লিটন দাস ও মুশফিকুর রহীম। দুজনই হতাশ করেন এদিন। সেঞ্চুরি বঞ্চিত মুশফিক। আগের দিন ১১৩ রানে অপরাজিত থাকা লিটন এদিন যোগ করতে পারেন মাত্র ১ রান।

বাকি ছয় উইকেটে দ্বিতীয় দিনে বাংলাদেশ তুলতে পারে মাত্র ৭৭ রান। ৬৮ বলে মেহেদী মিরাজ অপরাজিত থাকেন ৩৮ রান। তার ব্যাটেই বলতে গেলে তিন শ’ রান অতিক্রম করতে পারে স্বাগতিকরা।

জবাবে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে বিনা উইকেটে দিন পার করে পাকিস্তান। ৫৭ ওভারেও একটি উইকেট আদায় করতে পারেনি বাংলাদেশ। যদিও আলো স্বল্পতায় নির্ধারিত সময়ের আগেই হয় খেলা শেষ। পাকিস্তানের হয়ে আবিদ আলী আছেন সেঞ্চুরির দ্বারপ্রান্তে থাকেন। ১৮০ বলে তিনি অপরাজিত ৯৩ রানে। ১৬২ বলে ৫২ রানে অপরাজিত থাকেন আরেক ওপেনার আব্দুল্লাহ শফিক।


আরো সংবাদ


premium cement
‘ভাই’ সম্বোধনে গণমাধ্যম কর্মীর উপর ক্ষেপলেন নির্বাচন কর্মকর্তা নির্বাচন কমিশনার নিয়োগ আইনের খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন মন্ত্রিসভায় স্বাস্থ্যবিধি মানাতে সরকার ‘অ্যাকশনে’ যাবে : মন্ত্রিপরিষদ সচিব নাসিক নির্বাচনে নেতিবাচক রাজনীতির ভরাডুবি হয়েছে : ওবায়দুল কাদের টেক্সাসের পণবন্দীর ঘটনায় ২ জন গ্রেফতার করোনায় আক্রান্ত সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু ভারতে এক দিনে দুই লাখ ৫৮ হাজার করোনা রোগী শনাক্ত ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির ৬০ থেকে ৬৫টি ওয়ার্ডের কর্মীসভা শেষ : রবিন দেশে বয়ে যাচ্ছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ ভ্যাকসিন সার্টিফিকেট বহন করা বাধ্যতামূলক করল ফরাসি পার্লামেন্ট বসুন্ধরা গ্রুপের সহযোগিতায় মৌলভীবাজারে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ

সকল