৩০ জুলাই ২০২১
`

বৃষ্টিতে ভারতের ম্যাচ পণ্ড হতেই আইসিসিকে তুলোধুনো!

বৃষ্টিতে ভারত-নিউজিল্যান্ড ম্যাচের প্রথম দিনের খেলা পণ্ড হয়ে গেছে। - ছবি : সংগৃহীত

সাউদাম্পটনে আগামী ছয়দিনই বৃষ্টির পূর্বাভাস ছিল। আর পূর্বাভাসের আশঙ্কাকে সত্যি প্রমাণ করেই সেখানে অঝোরে ঝরে পড়ছে বৃষ্টি। কখনো ঝিরিঝিরি, কখনো মুষলধারে। আর বৃষ্টির দাপটের ওয়ার্ল্ড টেস্ট চাম্পিয়নশিপের দুটো সেশন বরবাদ হয়ে গিয়েছে শুক্রবার ফাইনাল টেস্টের প্রথম দিনেই।

আর এতেই জুনের বর্ষায় ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল কেন ইংল্যান্ডে- এমন প্রশ্ন তুলে আইসিসিকে আক্রমণ ক্রিকেট সমর্থকদের।

প্রথমে ভাবা হয়েছিল কিছুক্ষণ বিরতি নিয়ে ঘণ্টাখানেক পরে টস করা হবে। তবে বৃষ্টির ঝাপটা না কমায় ম্যাচ তো বটেই টসও করা সম্ভব হয়নি। লাঞ্চের অনেকক্ষণ আগেই সরকারিভাবে আইসিসির পক্ষ থেকে জানিয়ে দেয়া হয়, লাঞ্চ অবধি খেলা বন্ধ থাকবে। তবে লাঞ্চ পেরিয়ে গেলেও খেলা শুরু করা যায়নি।

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) টুইটারে জানিয়েছে, আজকের মতো প্রথম দিনের খেলা বন্ধ করার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হয়েছে। শনিবার (১৯ মে) খেলা শুরু হবে।

আর রুদ্ধশ্বাস ক্রিকেটীয় দ্বৈরথ বৃষ্টিতে ভেস্তে যাওয়ায় ক্রিকেট মহলে কাঠগড়ায় দাঁড় করানো হয়েছে আইসিসিকে। বিসিসিআইয়ের তরফে প্রথম সেশনের পরেই আপডেট দিয়ে জানানো হয় করুণ পরিণতি। তারপরেই সমর্থকরা তুলোধুনো করতে শুরু করেছেন আইসিসিকে। সকলেই নিজেদের হতাশা উগরে দেন আইসিসিকে লক্ষ্য করে।

এর আগে ড্রেসিংরুমে বসেই রবিচন্দ্রন অশ্বিন মাঠের ছবি ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করে লেখেন, ‘ক্যামেরারও বর্ষাতি রয়েছে।’

তারকা স্পিনারের স্ত্রীও অঝোর ধারায় মাঠে বৃষ্টির ভিডিও ছবি শেয়ার করে লেখেন, ‘পড়েই যাচ্ছে!’

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে আগামী ছয়দিনই বৃষ্টির ইঙ্গিত রয়েছে। আর আগাম এই কারণেই অতিরিক্ত একদিন রিজার্ভ ডে হিসেবে একদিন জুড়ে দেয়া হয়েছে।

তবে ছয়দিনেও ম্যাচের ফয়সালা হবে কিনা, তা নিয়ে সংশয় শুরু হয়ে গিয়েছে।

কোনো কারণে নির্ধারিত দিনে ম্যাচের ফলাফল পাওয়া না গেলে, ট্রফি এবং পুরস্কার অর্থ ভাগাভাগি করে দেয়া হবে ভারত এবং নিউজিল্যান্ডকে।



আরো সংবাদ