০৪ মার্চ ২০২১
`

শেষ বেলায় চাপে পাকিস্তান

শেষ বেলায় চাপে পাকিস্তান - ছবি : সংগৃহীত

দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২২০ রানে গুটিয়ে দেয়ার পর করাচির টেস্টের প্রথম দিনের শেষ বেলায় চাপে পাকিস্তান। প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে দিন শেষে ৩৩ রান করেছে পাকিস্তান। উইকেট পড়েছে চারটি।

প্রোটিয়াদের পেস তোপে দিনের শেষ বেলায় ১৮ ওভার খেলতে পেরেছে পাকিস্তান। উইকেট পতন চারটি। কোন ব্যাটসম্যানই ছুতে পারেননি দুই অঙ্কের রান। দলীয় ৫ রানে প্রথম উইকেটের পতন। রাবাদার বলে বোল্ড ওপেনার আবিদ আলী (৪)। দলীয় ১৫ রানের মাথায় আবার রাবাদার আক্রমণ। এবার আরেক ওপেনার ইমরান বাট ফেরেন সাজঘরে। ২৫ বলে তিনি করেন মাত্র ৯ রান।

এরপর পাক শিবিরে মাহরাজ ও নরজের আক্রমণ। দলীয় ২৬ রানে বিদায় নেন পাক অধিনায়ক বাবর আজম। ৩০ বলে সাত রানে তিনি মাহরাজের বলে এলবিডব্লিউর শিকার। এরপর রানের খাতা খুলতে না পারা শাহিন শাহ আফ্রিদিকে বোল্ড করেন নরজে। প্রথম দিন শেষে পাকিস্তানের সংগ্রহ ৪ উইকেটে ৩৩ রান। ৫ রানে ক্রিজে অপরাজিত আছেন ফাওয়াদ আলম।

এর আগে দিনের শুরুতে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো ছিল দক্ষিণ আফ্রিকার। কিন্তু ধীরে ধীরে প্রোটিয়াদের চেপে ধরে পাকিস্তানের বোলাররা। ফলে ধারাবাহিক বিরতিতে পড়তে থাকে উইকেট। ইয়াসির-নোমানের স্পিন ঘূর্ণির সাথে শাহিন শাহ ও হাসান আলীর পেস তোপে বড় সংগ্রহ গড়তে পারেনি প্রোটিয়া শিবির।

দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে সর্বোচ্চ ইনিংস এসেছে ওপেনার ডিন এলগারের ব্যাট থেকে। ১০৬ বলে নয়টি চারে তিনি করেন ৫৮ রান। তবে আরেক ওপেনার এডিন মারক্রাম টিকতে পারেননি। শাহিন শাহর বলে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন মাত্র ১৩ রান করে।

ওয়ান ডাউনে নামা ভ্যান ডার ডসন ১৭ রান করে রান আউট। ভরসার জায়গা ফাফ ডু প্লেসিসও হাঁটলেন উল্টো পথে। ইয়াসির শাহর গুগলিতে কাটা পরেন ব্যক্তিগত ২৩ রানে। মিডল অর্ডারে লড়াইটা করতে পারেননি অধিনায়ক কুইন্টন ডি কক। নোমান আলীর স্পিন বুঝতে পারেননি তিনি। ২৩ বলে ১৫ রান সম্বল প্রোটিয়া অধিনায়কের। বাভুমার অবস্থাও একই, ফেরেন ১৭ রান করে।

শেষের দিকে জর্জ লিন্ডে ও পেসার ক্যাগিসো রাবাদার ব্যাটে দুই অতিক্রম করে দক্ষিণ আফ্রিকা। লিন্ডে ৩৫ রানে হাসান আলীর শিকার হলেও ২১ রানে রাবাদা থাকেন অপরাজিত। বল হাতে পাকিস্তানের হয়ে তিন উইকেট নেন ইয়াসির শাহ। শাহিন শাহ ও নোমান আলী দুটি, হাসান আলী পান একটি উইকেট।



আরো সংবাদ