০৩ মার্চ ২০২১
`

অস্ট্রেলিয়ার ৩২ বছরের রেকর্ড দুমড়েমুচড়ে ভারতের দুর্দান্ত জয়


অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দুর্দান্ত জয় পেয়ে সিরিজ নিজেদের করে নিয়েছে ভারত। সিরিজ নির্ধারণী চতুর্থ ও শেষ টেস্টটিতে ৩ উইকেটে রোমাঞ্চকর জয় পেয়েছে আজিঙ্কা রাহানের দল। ব্রিসবেনে অস্ট্রেলিয়ার ৩২ বছরের অপরাজিত থাকার রেকর্ড দুমড়েমুচড়ে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতেছে তারা।

শেষ মুহূর্তে উত্তেজনায় ঠাসা ছিল ম্যাচটি। ভারতের জয়ের জন্য দরকার ছিল ৩ রান। জস হ্যাজলউডের বলটা লং অফের দিকে ঠেলে দিয়েই প্রাণপন দৌড় শুরু করলেন রিশাভ পান্ত। দৌড়ে হলেও জয়টা নিশ্চিত করা চাই। শেষ পর্যন্ত বলটা সীমানা পার হয়ে বাউন্ডারি হলো। জয়োল্লাসে ফেটে পড়লো ভারত। পান্ত অপরাজিত ছিলেন ৮৯ রানে।

এর আগে ম্যাচের একপর্যায়ে ভারতের লক্ষ্য দাঁড়াল ১০০ বলে ৮০। সে সমীকরণ যখন ৮১ বলে ৬৩, তখন মরিয়া অস্ট্রেলিয়া মায়াঙ্ক আগারওয়ালকে আউট করতে রিভিউ নিয়ে নিল। কিন্তু হট স্পট কিংবা স্নিকো কোনো কিছুই অস্ট্রেলিয়াকে আকাঙ্ক্ষিত কিছু দেখাতে পারল না। সেটা আগারওয়াল নিজেই দেখালেন। এতক্ষণ চমৎকার কিছু শট খেলা এই ব্যাটসম্যান কামিন্সের পরের বলেই কভার অঞ্চলের দৈর্ঘ্য মাপতে চাইলেন। ধরা পরলেন শর্ট কভারে থাকা ওয়েডের কাছে। বেশ কিছুক্ষণ পর মনে হলো ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ারও তাহলে সুযোগ আছে। তাদের যে আর ৫ উইকেট দরকার। কিন্তু জেতার জন্য উইকেট দরকার। সে উইকেট নেয়ার জন্য যে বোলারও দরকার।

অস্ট্রেলিয়া দলে যে কামিন্স ছাড়া অন্য কোনো বোলার উইকেট নিতে পারেন, সেটা বোঝার যে কোনো উপায় নেই। শুধু শুবমান গিলকে সেঞ্চুরি বঞ্চিত করেছিলেন লায়ন। সেই লায়ন শেষ ঘণ্টায় ভয়ঙ্কর সব বাঁক আদায় করছিলেন। কিন্তু উইকেট আদায় করা হচ্ছিল না। জস হ্যাজলউড বা মিচেল স্টার্ক তো আজ রান আটকানোর কাজটাও করতে পারেননি। এর মধ্যেই ভারতের জয়ের লক্ষ্যটা ৫৩-তে নেমে এসেছে। আর ওভারের সংখ্যা নেমে এসেছে ১০-এ।

এক পর্যায়ে ভারতের ১০ ওভারে প্রয়োজন। ৫৩ রান। আর অস্ট্রেলিয়ার ৫ উইকেট।

টানা দুই ওভারে চাপ বেড়েছিল। কিন্তু কামিন্সের দুই বলে দুটি শটে ১০ রান তুলে নিলেন ওয়াশিংটন সুন্দর। ৮ ওভারে ভারতের দরকার ৩৯ রান। গ্যালারিতে তখন ভারতের দর্শকদের গর্জন উঠছে । লায়নের বলে টানা দুই বলে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট ফেরালেন পান্ত। প্রথমে প্যাডল সুইপ, তারপরই স্লগ সুইপ। অস্ট্রেলিয়ার যন্ত্রণা বাড়াতেই পঞ্চম বলে চার বাই রান পেল ভারত।

এখন ৬ ওভারে মাত্র ২৪ রান দরকার ভারতের! পরের ৯ বলে ১৪ রান তুলে ম্যাচটা শেষ করে দিয়েছেন পান্ত ও সুন্দর। এরপরই ভাগ্য ফুরোল সুন্দরের। লায়নকে রিভার্স সুইপ করতে গিয়ে বোল্ড হলেন প্রথম ইনিংসের নায়ক। ভারতের দরকার ১০ রান, আর অস্ট্রেলিয়ার জয়ের স্বপ্ন যদি কেউ তখনো দেখে থাকেন, স্বাগতিকদের দরকার ৪ উইকেট।

৫ বলে প্রয়োজনীয় উইকেটসংখ্যা তিনে নামল। কিন্তু ততক্ষণে ভারতের রানও কমে এসেছে ৩-এ। এক বল বিরতি। পরের বলেই চার মেরেই ঝামেলা চুকালেন পন্ত। ৮৯ রানে অপরাজিত থেকে বীর বেশেই মাঠ ছাড়লেন পান্ত।



আরো সংবাদ