০৪ ডিসেম্বর ২০২০

অধিনায়কত্বের চাপ মিডিয়ার বানানো : তামিম

তামিম ইকবাল - ছবি : নয়া দিগন্ত

ওয়ানডে ক্রিকেটে অধিনায়কের দায়িত্ব তিনি পেয়েছেন ৯ মাসের মতো হলো। কিন্তু মজার বিষয় হলো, করোনার কারণে এখন পর্যন্ত একটি ম্যাচেও অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করার সুযোগ পাননি তামিম ইকবাল। কিন্তু তারপরও তার অধিনায়কত্ব নিয়ে হয় কাটাছেড়া, চলে চুলচেরা বিশ্লেষণ। আর সেটা লঙ্কান সফরে অনানুষ্ঠানিক অধিনায়ক হিসেবে তিন ম্যাচের সিরিজের হোয়াইটওয়াশ হওয়ার কারণে। আর সম্প্রতি প্রেসিডেন্টস কাপের তার দল ফাইনালে উঠতে না পারায়।

জাতীয় দলের হয়ে কোনো ম্যাচে আনুষ্ঠানিকভাবে অধিনায়ক হিসেবে দেখা যায়নি তামিমকে। তারপরও ব্যর্থতার আলোচনা কেন? শনিবার ফরচুন বরিশালের হয়ে প্র্যাকটিস করার পর সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হন তিনি। যেখানে অধিনায়কত্বের চাপ প্রসঙ্গ উঠতেই যেন বিরক্ত হলেন তামিম। সরাসরি বলেই দিলেন, ‘এটা মিডিয়ায় বানানো। আমি তো কোনো ম্যাচ অধিনায়ক হিসাবে খেলিই নাই।’

এ প্রসঙ্গে তামিম মিরপুরে বলেন, ‘অধিনায়কত্বের চাপ… আমি তো এখনো পর্যন্ত ওই রকম কোনো চাপের ম্যাচই খেলিনি! প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ক্রিকেট হতে হবে তো… অধিনায়কত্বের চাপ এটা আসলে আপনাদের (সাংবাদিকদের) বানানো। আমি এখনো কোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলিনি (দায়িত্ব পাওয়ার পর)।’

অধিনায়কত্বের বিচার হয় ধীরে ধীরে। তিনি বলেন, ‘আমি যেদিন অধিনায়কত্ব পেয়েছি, ওই দিনই বলেছি যে, আপনারা বিচার করবেন ছয় মাস বা এক বছর পর। পৃথিবীর যত বড় অথবা ছোট নেতাই হোক, দুই ম্যাচ-তিন ম্যাচ পর আপনারা (সাংবাদিকরা) শুরু করে দেন ক্যাপ্টেন্সির চাপ... এটা শুধু আমার ব্যাপার নয়, যে কারো ক্ষেত্রেই।’

তিনি বলেন, ‘একটা বাচ্চা হাঁটতে কিন্তু ৯ মাস সময় নেয়… এক দিনে না হাঁটলে তো আপনি বলতে পারেন না যে সে হাঁটতে পারে না। সময় লাগবেই। অধিনায়কত্ব আমার খেলায় কতটা প্রভাব ফেলছে, সেটা অন্তত ২০ ম্যাচ পর বিচার করবেন,… কিংবা ১০-১৫ ম্যাচ পর। দুই-তিন ম্যাচ পর সেটা করতে পারেন না।’

নেতৃত্ব নিয়ে কোনো সমস্যা নেই তামিমের। তাও অকপটে স্বীকার করলেন, ‘আমার কোনো সমস্যা হয় না ভাই (নেতৃত্বের চাপ নিয়ে)… ওটা নিয়ে এত চিন্তাও করি না। নেতৃত্ব নিয়ে অনেকবারই বলেছি, এটা এমন নয় যে ছোটবেলা থেকে স্বপ্ন দেখেছি। কখনোই স্বপ্ন দেখিনি দেশের অধিনায়ক হওয়ার। বরং সুযোগটা এসেছে আমার কাছে। চেষ্টা করব ভালোভাবে করতে।’

কেমন হতে পারে অধিনায়কত্ব পর্ব? সেটা সময়ের হাতেই ছেড়ে দিলেন তামিম, ‘ভালো হবে বা খারাপ, সেটা সময়ই বলবে। অধিনায়ক আমি হই বা পরে যে হোক, কিংবা আগে যে ছিল… ভালো বা সফল অধিনায়ক হতে হলে অনেক সময় দিতে হবে। এক সিরিজ বা দুই সিরিজে আপনি যদি মনে করেন কাজ হচ্ছে না, এটা আসলে কারো জন্য ভালো নয়। শুধু নিজের দেখে বলছি না। আমার জন্য, দলের জন্য, দেশের জন্য, কারো জন্যই ভালো নয়। কিছু সময় দিতেই হবে।’


আরো সংবাদ

সৌদি আরবে ইমাম হোসাইন মসজিদটি ভেঙে ফেলার নির্দেশ (১০৭২৭)অপশক্তি মোকাবেলা করে ইসলামের বিজয় নিশ্চিত করতে হবে : মামুনুল হক (৯১৪৮)রাজধানীতে সমাবেশের অনুমতি পায়নি সম্মিলিত ইসলামী দলগুলো (৮৩৫৮)ভাস্কর্যের নামে মূর্তি স্থাপন কোনোক্রমে মেনে নেয়া যায় না : সম্মিলিত ইসলামী দলসমূহ (৫৯৯৭)স্টেডিয়ামগুলোকে জেলে রূপান্তরের অনুমতি না দেয়ায় কেজরিওয়ালের ওপর ক্ষুব্ধ মোদি (৫৬৯৯)দেশের প্রয়োজনে সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকারের নির্দেশ সেনাপ্রধানের (৫৪১৬)আওয়ামী লীগের আপত্তি, মামুনুল হকের মাহফিল বাতিল (৫২৩৭)কোনো মুসলিম হিন্দু নারীকে বিয়ে করতে পারে কিনা (৪৯৫৯)বাবার ডাকে বাড়ি ফিরে বড় ভাইয়ের হাতে খুন (৪৬০৮)পাঠ্যসূচিতে থাকলেও গুরুত্ব হারাচ্ছে ইসলাম শিক্ষা (৪০৩৯)