২৭ নভেম্বর ২০২০

দ. আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ডের সবার একসাথে পদত্যাগ


দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ডের (সিএসএ) সব সদস্য একসাথে পদত্যাগ করেছেন। এর আগে গত রোববার বোর্ডের ছয় পরিচালক পদত্যাগ করেছিলেন।  আজ সোমবার সকালে একসাথে পদত্যাগ করেছেন বোর্ডের বাকি ১০ সদস্য। ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকার (সিএসএ) অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে বোর্ডের সব সদস্যের পদত্যাগের তথ্য নিশ্চিত করেছে।

এ বিষয়ে এক বিবৃতিতে সিএসএ বলেছে, ‘আলোচনায় বলা হয়েছিল যে, দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটের ভালোর জন্য পুরো বোর্ডেরই পদত্যাগ করা উচিত। আজ সকালে সেটিই ঘটল। বোর্ডের সব পরিচালকই দায়িত্ব ছেড়ে দিয়েছেন।’

গত শুক্রবার পুরো বোর্ডকে সরে দাঁড়াতে বলে দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটের শীর্ষ সিদ্ধান্ত গ্রহণকারী সংস্থা মেম্বারস’ কাউন্সিল। এরই পরিপ্রেক্ষিতে এ পদত্যাগের ঘটনা ঘটল।

ক্রিকেট বোর্ডের ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট বেরেসফোর্ড উইলিয়ামস, একজন স্বতন্ত্র সদস্য দেভেন ধর্মলিঙ্গাসহ পাঁচজন পরিচালক রোববার পদত্যাগ করেন। এরপর আজ সোমবার সকালে পদত্যাগ করে- পরিচালক জোলা থামাই এবং তিন স্বতন্ত্র পরিচালক ইউগেনিয়া কুমা আমেয়াও, মরিস স্কোম্যান ও ভুয়োকাজি মেমানি সেডিল।

উল্লেখ্য, দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেট বোর্ডের জন্য দেশটির স্পোর্টস ফেডারেশন এবং অলিম্পিক কমিটির নির্দেশনা মেনে অন্তর্বর্তীকালীন একটি নতুন পরিচালন কমিটি ঠিক করতে বলা হয়েছিল। তবে তখন পুরনো কমিটি ভাঙতে রাজি হয়নি ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকা।

যে কারণে পুরো বিষয়টিকে দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রীড়ামন্ত্রী নাথি থেতওয়ার কাছে হস্তান্তর করে অলিম্পিক কমিটি। তখন ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকাকে ‘ন্যাশনাল স্পোর্টস অ্যান্ড রিক্রিয়েশন অ্যাক্ট’ অমান্য করার যথাযথ কারণ দেখানোর জন্য মঙ্গলবার পর্যন্ত সময় বেঁধে দেন ক্রীড়ামন্ত্রী।

এর পরই টানা দুদিনে বোর্ডের ১৬ কর্মকর্তা পদত্যাগ করলেন।

থেতওয়া আইসিসিতেও নোটিশ পাঠিয়ে রেখেছিলেন যে তিনি সাম্প্রতিক সময়ের সংকট উত্তরণে যথাযথ পদক্ষেপ নেবেন। যার ফলে এখন সরকারের হস্তক্ষেপমুক্ত হয়ে অলিম্পিক কমিটির সঙ্গে মিলে নতুন সাংগঠনিক কাঠামো দাঁড় করাতে পারবে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ড।

তবে এক্ষেত্রে আবার আছে ক্রীড়ামন্ত্রীর কড়া নির্দেশ। মঙ্গলবারের মধ্যে তাকে অন্তর্বর্তীকালীণ কমিটি গঠনের মাধ্যমে ভবিষ্যত পরিকল্পনার ব্যাপারে জানাতে হবে। এই কমিটিতে অন্তত একজন সাবেক ক্রিকেটারকে রাখার বাধ্যবাধকতাও দিয়ে দেয়া হয়েছে।


আরো সংবাদ