২৮ অক্টোবর ২০২০

১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন মেনে শ্রীলঙ্কা সফর সম্ভব না : ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী


টেস্ট সিরিজ খেলতে শ্রীলঙ্কায় ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনের কোনো যুক্তি দেখছেন না যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল। তিনি বলেন, এটি ক্রিকেটারদের ফিটনেসের উপর প্রভাব ফেলবে।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সাথে সুর মিলিয়ে রাসেল জানান, শ্রীলঙ্কা সফরে জাতীয় দলের তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজের জন্য কোয়ারেন্টাইনের সময় কমিয়ে আনার পাশাপাশি, ক্রিকেটারদের হোটেলে জিম-সুইমিং পুলসহ এবং অন্যান্য সুবিধা দেওয়া উচিত।

শ্রীলঙ্কা সরকারের নিয়নুসারে, সফরে গেলে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে বাংলাদেশ দলকে। এমনকি খাবারের জন্যও হোটেলের ঘর থেকে বের হতে পারবে না।

আজ রাজধানীর একটি হোটেলে জয়তু শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক অনলাইন দাবা চ্যাম্পিয়নশিপের সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাসেল বলেন, ‘১৪ দিনের জন্য হোটেলের রুমে বন্দি থাকা সম্ভব নয়। এটি খেলোয়াড়দের ফিটনেসে প্রভাব ফেলবে এবং আমাদের খেলোয়াড়দের জন্য ফিটনেস বড় ইস্যু।’

তিনি আরও বলেন, ‘যদি কোয়ারেন্টাইনের সময় কমানো হয়, তবে আমাদের হোটেলে থাকতে কোন সমস্যা নেই। একই সাথে আমাদের হোটেলে জিম-সুইমিং পুল ব্যবহার ও অন্যান্য সুবিধাও দিতে হবে। আশা করছি, তাদের কাছ থেকে ইতিবাচক সাড়া পাবো। আমরা সিরিজটি খেলতে আগ্রহী।’

গত বৃহস্পতিবার শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের প্রধান নির্বাহী অ্যাশলে ডি সিলভা জানান, সফরকারী দলকে শ্রীলঙ্কা কোভিড-১৯ টাস্কফোর্স দ্বারা প্রদত্ত স্বাস্থ্যবিধির কঠোর নির্দেশনাগুলো অনুসরণ করতে হবে, নয়তো তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ পিছিয়ে দেয়া হবে। তবে বিসিবি জানিয়েছে, এ বিষয়ে কোনো অফিসিয়াল মেইল পাইনি।

রাসেল বলছেন, সফর নিয়ে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের সাথে বিসিবির নিয়মিত যোগাযোগ হচ্ছে। তিনি জানান, ‘করোনার সময়ে আমাদের একটি সিরিজ রয়েছে, যা আমরা খুব আগ্রহের সাথে দেখছি। আমরা সিরিজটি নিয়ে খুব বেশি আগ্রহী এবং সিরিজকে সামনে রেখে আমাদের খেলোয়াড়রা অনুশীলন করছে।’

রাসেল আরো বলেন, ‘আমরা শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের সাথে নিয়মিত আলোচনা করছি। তারা যে বিধিনিষেধ দিয়েছে, তাতে আমরা বলেছি, কোয়ারেন্টাইনের সময় কমাতে হবে। আমরা বলেছি, ১৪ দিনের কোয়ারেন্টান করবো না। আশা করছি, তারা বিষয়টি বিবেচনা করবে।’


আরো সংবাদ