২৭ অক্টোবর ২০২০

শ্রীলংকা সিরিজকে সামনে রেখে স্কিল ট্রেনিং শুরু টাইগারদের


১৯৮ দিন পর গ্রুপে স্কিল ট্রেনিং করার সুযোগ পেল বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। আজ মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে স্কিল ট্রেনিং শুরু হয়।

স্কিল ক্যাম্পের জন্য ২৭জন ক্রিকেটার ডাক পান। তবে প্রথম দিন ১৬জন ক্রিকেটার উপস্থিত ছিলেন। বাকীরা আগামীকাল থেকে যোগ দিবেন বলে বিসিবির কর্মকর্তারা জানান।

গেল মার্চের মাঝামাঝি থেকে করোনাভাইরাসের প্রকোপ বেড়ে যাবার পর থেকে দেশে ক্রিকেটীয় কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) ব্যক্তিগত অনুশীলনের আয়োজন করলে গেল ১৯ জুলাই মাঠে ফিরে ক্রিকেটাররা।

বিভিন্ন ভেন্যুতে নিজেদের ব্যক্তিগত অনুশীলন চালিয়ে যান ক্রিকেটাররা। তবে শ্রীলংকার বিপক্ষে তিন ম্যাচের সিরিজটি দ্রুতই এগিয়ে আসায়, বিসিবি গ্রুপ অনুশীলন শুরু করেছে, তবে সেটা ক্রিকেটারদের জন্য জৈব-সুরক্ষা তৈরির আগে নয়।

ক্যাম্প শুরুর আগে করোনা পরীক্ষায় সকল ক্রিকেটারই নেগেটিভ ফল পেয়েছে। জৈব-সুরক্ষা পরিবেশে হোটেল সোনারগাঁওয়ে ক্রিকেটার ও কোচিং স্টাফদের পাঠাচ্ছে বিসিবি, যেখানে তাদের জন্য দু’টি তলা ভাড়া নেয়া হয়েছে।

হোটেল সোনারগাঁওয়ে জৈব-সুরক্ষা পরিবেশে যারা খেলোয়াড়দের সেবা দিবে, এমন ৩৫জন স্টাফেরও করোনা পরীক্ষা করা হয়। ক্রিকেটারদের জন্য দু’টি বাস প্রস্তুত করা হয়েছে। বাস দু’টি, খেলোয়াড়দের অনুশীলনের জন্য হোটেল থেকে স্টেডিয়াম ও স্টেডিয়াম থেকে হোটেলে যাতায়াত করবে। দু’টি বাসের চালকও অন্যান্যরাও জৈব-সুরক্ষা পরিবেশে থাকবেন।

অনুশীলন শুরুর আগে ক্রিকেটারদের বেশ কিছু পরামর্শ দেন কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো। এরপর দু’টি দলে ভাগ হয়ে ২০ মিনিট ক্রিকেটাররা ফুটবল ম্যাচ খেলেন। ফুটবল নিয়ে ঘাম ঝড়ানোর পর স্কিল ট্রেনিং শুরু করেন তারা।

ব্যাটিং ও স্পিন কোচ ছাড়াই স্কিল ক্যাম্প শুরু হয়েছে। বাবার মৃত্যুর কারণে ব্যাটিং পরামর্শক হিসেবে টাইগারদের দায়িত্ব নিতে পারছেন না ক্রেইগ ম্যাকমিলান। তবে ভেট্টোরি যোগদানের বিষয়ে এখনো জানাতে পারেননি। অবশ্য এর আগে, ভেট্টোরি জানিয়েছিলেন, শ্রীলংকায় দলের সাথে যোগ দিবেন তিনি।

কিন্তু কোয়ারেন্টাইন ইস্যুতে বাংলাদেশ দলের শ্রীলংকা সফরের ভবিষ্যত অন্ধকার হয়ে যাওয়ায়, ভেট্টোরি আগে বাংলাদেশে আসবেন বলে জানিয়েছে বিসিবি।

বোলিং কোচ ওটিস গিবসন, ফিল্ডিং কোচ রায়ান কুক ও ট্রেনার নিক লি’র সাথে ক্যাম্পের দেখ-ভাল করছেন প্রধান কোচ ডোমিঙ্গো।

টেস্ট অধিনায়ক মোমিনুল হক বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে ক্রিকেট থেকে আমরা দূরে ছিলাম। তাই স্কিল ক্যাম্পটি অপরিহার্য ছিলো।’

তিনি আরও বলেন, ‘স্কিল ক্যাম্প শুরু হওয়াটা, অবশ্যই ভালো খবর। আমরা আমাদের টেকনিক, টেম্পারামেন্টম স্কিল নিয়ে কোচের সাথে কাজ করছি।’

স্পিন ও ব্যাটিং কোচ ছাড়া স্কিল ক্যাম্প শুরুতে কোন সমস্যা দেখছেন না মোমিনুল। তিনি বলেন, ‘এর আগেও বিশেষজ্ঞ কোচ ছাড়া আমরা স্কিল ট্রেনিং করেছি আমরা। মূল বিষয় হলো, দক্ষতা নিয়ে কাজ করা। সকলেই তাদের নিজস্ব শক্তি ও দক্ষতা সর্ম্পকে জানে। এখন ব্যাটিং-বোলিং ও ফিল্ডিং অনুশীলন করা। এতে বিশেষজ্ঞ কোচ থাকা ভালো, তবে বাধ্যতামূলক নয়। স্কিল ট্রেনিংএর অর্থ হলো- স্কিল নিয়ে কাজ করা।’


আরো সংবাদ