০৫ এপ্রিল ২০২০

আমি কি চুরি করি, প্রশ্ন মাশরাফির

দীর্ঘ দিন মাঠের বাইরে আছেন বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। ইঞ্জুরির কারণে বিশ্বকাপের পর আর খেলা হয়নি জাতীয় দলের সাথে। সিলেটে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশের ওয়ানডে সিরিজে মাঠে নামবেন তিনি। এ সিরিজের মাধ্যমে অবসরে যেতে পারেন তিনি।

সিলেটে ওয়ানডে সিরিজ শুরুর আগে শনিবার গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছিলেন মাশরাফি। সংবাদ সম্মেলনে অবসর ও পারফরম্যান্সের নানা দিক নিয়ে কথা বলেন। কিন্তু ‘পারফর্ম করাটা আত্মসম্মানের ব্যাপার কি না’ সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে বেশ বিরক্ত হয়ে যান তিনি। জবাবটাও বেশ কড়া ভাষায়।

তিনি বলেন, ‘আত্মসম্মান বা লজ্জা… আমি কি চুরি করি মাঠে? আমি কি চোর? খেলার সাথে লজ্জা, আত্মসম্মান… এসব আমি মেলাতে পারি না। এত জায়গায় চুরি-চামারি হচ্ছে, তাদের লজ্জা নেই? আমি মাঠে এসে উইকেট না পেলে লজ্জা লাগবে? আমি কি চোর?’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি কি বাংলাদেশের হয়ে খেলছি নাকি অন্য কোনো দেশের হয়ে, যে লজ্জা পেতে হবে! আমি পারিনি, আমাকে বাদ দিয়ে দেবে। ব্যাপারটি সিম্পল। কিন্তু লজ্জা-আত্মসম্মানবোধ আমি কার সাথে দেখাতে যাব? আমি তো বাংলাদেশের হয়ে খেলছি। আমি কি বাংলাদেশের মানুষের বিপক্ষের মানুষ? এখন যে কেউ পারফরম না করতেই পারে। তার যদি নিবেদন না থাকে, শৃঙ্খলা না থাকে, সেসব নিয়ে প্রশ্ন হতে পারে।’

বাংলাদেশের ক্রিকেটের ইতিহাসে অন্যতম সফল ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি। শুধু তাই নয়, সফলতম বোলারও। অধিনায়নের দায়িত্ব পাওয়ার পারফরম হারিয়ে ফেলেননি। তবে গেল বিশ্বকাপে তার বলের ধার কেমন যেন ফিকে হয়ে যায়। চিরচেনা সেই রূপে তাকে দেখা যায়নি বিশ্বকাপে। চোটের সাথে লড়াই করতে হয়েছে, বিশ্বকাপ জুড়ে ভুগেছেন হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে। নিজের সবশেষ ৫ ওয়ানডেতে পাননি কোনো উইকেট।

তার পারফরম নিয়ে প্রশ্নে কোনো অভিযোগ নেই তার। বরং সমালোচনাকে স্বাগতই জানান ওয়ানডে অধিনায়ক। তবে পারফরেমের সাথে আত্মসম্মানকে টেনে আনায় তিনি কতোটা বিরক্ত হয়েছিলেন সেটা বোঝা গেল তার দীর্ঘ উত্তরে।

নিজের পরফরম নিয়ে কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘উইকেট নাও পেতে পারি। আমার সমালোচনা আপনারা করবেন। সমর্থকেরা করবে। কিন্তু লজ্জা পেতে হবে কেন? কিন্তু ক্রিকেট খেলতে এসে আমি কি আত্মসম্মান বিসর্জন দিতে এসেছি? আমি কি অন্য দেশের হয়ে খেলছি নাকি চুরি-চামারি করছি?’


আরো সংবাদ

সকল