০৬ এপ্রিল ২০২০

মাশরাফি ভাই-ই আমার অনুপ্রেরণা : অভিষেক

আতশবাজির ঝলকানিতে চিত্রা নদীর পাড়ের বিশ্বকাপজয়ী খেলোয়াড় অভিষেককে বরণ করল নড়াইলবাসী। সোমবার রাত পৌনে ৮টার দিকে আতশবাজির ঝলকানিতে ভরে যায় চিত্রা নদীর আকাশ। প্রায় ঘণ্টাব্যাপী চলে আতশবাজির এ আয়োজন। রঙ-বেরঙের আলোর ঝলকানি পৌঁছে যায় যুব বিশ্বকাপ বিজয়ী ক্রিকেটার অভিষেক দাসের বাড়ি নড়াইল শহরের বাঁধাঘাটসহ আশপাশের এলাকায়।

নড়াইলের ছেলে অভিষেককে বরণ উপলক্ষে আতশবাজির বর্ণিল আয়োজন করেন অভিষেকপ্রেমীরা। এ আনন্দ উৎসবে যোগ দিতে সোমবার সন্ধ্যার আগে থেকেই নড়াইলের সুলতান মঞ্চ চত্বরে জড়ো হন বিভিন্ন পেশার মানুষ।

অভিষেকপ্রেমীদের সাথে আনন্দ ভাগাভাগি করতে অনুষ্ঠানস্থলে আসেন নড়াইল পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন পিপিএম (বার), নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ ওয়ানডে ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার বাবা গোলাম মোর্ত্তজা স্বপন, অভিষেকের বাবা অসিত দাস, ভারতের কলকাতা থেকে আগত অভিষেকের আত্মীয় জয়দেব কুমার, নড়াইল চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি হাসানুজ্জামান হাসান, নড়াইল পৌর কাউন্সিলর শরফুল আলম লিটু, আসলাম খান লুলু প্রমুখ।

বরণ অনুষ্ঠানে অভিষেক বলেন, মাশরাফি ভাই-ই আমার অনুপ্রেরণা। মাশরাফি ভাইয়ের মতো ভালো খেলোয়াড় হওয়ার স্বপ্ন দেখি।

ক্রিকেটার ‘অভিষেক দাস’ বাবা-মা, পরিবার-পরিজন ও বন্ধুদের কাছে ‘অরণ্য’ নামে বেশি পরিচিত। সেই অরণ্য বা ক্রিকেট বিশ্বের ‘অভিষেক’ই গত ৯ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ-ভারত যুব বিশ্বকাপ ফাইনালে ভারতের গুরুত্বপূর্ণ ৩ ইউকেট শিকার করে খেলায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন।

অভিষেকের বাড়ি নড়াইল শহরের চিত্রা নদীর পাড়ে বাঁধাঘাট চত্বরে। যে চিত্রা নদীতে সাঁতার কেটে, দুরন্তপনায় বেড়ে উঠেছেন ক্রিকেট বিশ্বের আরেক কিংবদন্তি নড়াইলের ‘কৌশিক’ তথা মাশরাফি বিন মর্তুজা। সেই চিত্রাপাড়ের ছেলে অভিষেকও। চলতি বছর নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজে থেকে ‘ব্যবসায় শিক্ষা’ শাখায় উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবেন অভিষেক।


আরো সংবাদ