০৭ মে ২০২১
`

নতুন আইফোনে কী থাকছে

-

নতুন আইফোনে কী থাকতে পারে তা নিয়ে বেশ কিছু দিন আগে থেকেই গুঞ্জন শুরু হয়েছে। সাম্প্রতিক সময়ের সবচেয়ে বড় আপগ্রেড আসতে পারে আইফোন ১৩ লাইনআপে। আইফোন ১৩-তে সম্ভবত এ যাবতকালের সবচেয়ে বড় আপগ্রেড আসতে যাচ্ছে।
আইফোন ১২ যতটুকু চার্জে ১০ ঘণ্টা চলতো, সেই একই চার্জে এখন আইফোন ১৩ চলবে ১২ ঘণ্টা। চোখ কপালে তোলার মতো উন্নতি বটে। বিশেষ করে আইফোন ১২-এর ব্যাটারি লাইফ ব্যবহারকারীদের ভালোই ভুগিয়েছে। আইফোন ১১-এর তুলনায় ১২’র ব্যাটারি ছিল আকারে ছোট, ফলে কম ক্ষমতার, ফলে চার্জ থাকতো কম। সেটা যদি এবার গিয়ে ২০% বাড়ে, খবরটা স্বস্তির, সন্দেহ নেই। অ্যাপলের দুই চুক্তিভিত্তিক যন্ত্রাংশ নির্মাতা স্যামসাং এবং এলজি নতুন ফোনের জন্য এলটিপিএস ওলেড-এর পরিবর্তে এলটিপিও এলেড ডিসপ্লে তৈরি করছে। ঘটনাটি সত্যি হলে সেটি গ্রাহকদের জন্য ‘ডাবল উইন’ হবে বলে মন্তব্য করেছে প্রকাশনাটি। একদিকে যেমন শক্তি খরচ কমবে তেমনি অন্যদিকে ব্যবহারকারী এক হার্টজ থেকে ১২০ হার্টজ ভেরিয়েবল রিফ্রেশ রেটের ডিসপ্লে পাবেন। ডিসপ্লের ডিসপ্লে রেট বেড়ে গেলে ভিডিও অনেক মসৃণ হয় সত্যি, কিন্তু এতে বারোটা বাজে ব্যাটারি চার্জের। এখানেই ব্যাটারির চার্জ বাঁচাতে ভূমিকা রাখতে পারে ভেরিয়েবল রিফ্রেশ রেট।
অ্যাপলের সিস্টেম অনএচিপ প্রতিটি নতুন সংস্করণেই আসে বেশ কিছু আপগ্রেড নিয়ে। এ১৫ চিপের সেই ধারাবাহিকতা এবারও বজায় থাকবে আশা করা যায়। সূত্র বলছে, এর পাশাপাশি পরবর্তী প্রজন্মের ৫জি মডেম আসবে নতুন আইফোনে।
নচ বিষয়টিই জনপ্রিয় করেছিল আইফোন এক্স। অন্য ফোনগুলো সেই নচকে দিন দিন কমিয়ে এনেছে। অথচ অ্যাপল বসে ছিল প্রায় আগের চেহারাতেই। এবার ফাঁস হওয়া বিভিন্ন ছবি বা স্ক্রিনশট থেকে অনুমান করা যাচ্ছে নচের আকার অনেক কমিয়ে আনতে পারে অ্যাপল। এর বাইরে আর কী পরিবর্তন আসছে সেটা জানার জন্য হয়তো আরো কিছুদিন অপেক্ষা করতে হতে পারে।



আরো সংবাদ