১৫ জুলাই ২০২০

ট্রাম্পের সঙ্গে জাকারবার্গের ফোনালাপ

-

বাকস্বাধীনতা নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর মধ্যে চলমান বিতর্কের মধ্যেই সম্প্রতি ফেসবুক প্রধান মার্ক জাকারবার্গের সাথে ফোন কলে কথা বলেছেন ট্রাম্প, এমনটাই দাবি করেছেন বিষয়টির সাথে সংশ্লিষ্ট এক ব্যক্তি।
ফোন কলে ঠিক কী বিষয়ে আলোচনা হয়েছে তা এখনো স্পষ্ট নয়। তবে, এই আলোচনা ফলপ্রসূ হয়েছে বলে জানিয়েছে দুই পক্ষই।
ট্রাম্পের বিতর্কিত দু’টি পোস্টই নিজেদের প্ল্যাটফর্মে রেখেছে ফেসবুক। জাকারবার্গ বলেন, আমি মনে করি না সামাজিক মাধ্যমের উচিত সত্যের বিচার করা। তিনি আরো বলেন, রাজনীতিবিদরা কী বলছেন তা মানুষের দেখা উচিত।
শেষ পর্যন্ত ক্ষমতাসীন একজন ব্যক্তির কাজের মূল্যায়ন তখনই হওয়া সম্ভব যখন তাদের বক্তব্য নিয়ে প্রাকাশ্যে আলোচনার সুযোগ থাকে। মিনেসোটার বিক্ষোভ নিয়ে পোস্ট ফেসবুকের নীতিমালা লঙ্ঘন করেনি বলেও সিদ্ধান্ত টেনেছেন জাকারবার্গ।
সামাজিক মাধ্যমের সেন্সরশিপ বন্ধ করতে শুক্রবার নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করেছেন ট্রাম্প। মার্কিন প্রেসিডেন্টের টুইটে ফ্যাক্ট-চেক লেবেল জুড়ে দেয়ার ফলেই ট্রাম্প এমন পদক্ষেপ নিয়েছেন বলে ব্যাপকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।
অনেক বছর ধরেই ট্রাম্পের বিতর্কিত টুইট প্রসঙ্গে নীরব ভূমিকা পালন করেছে টুইটার। আর দশজন সাধারণ ব্যবহারকারীর মতো টুইটারের বিধিনিষেধ সেভাবে মেনে না চললেও টুইটার তেমন কিছুই বলেনি তাকে। কিন্তু এ সপ্তাহে এসে বদলে গিয়েছে সব। হুট করে প্ল্যাটফর্মটি ‘ফ্যাক্ট-চেক’ লেবেল যুক্ত করেছে মার্কিন প্রেসিডেন্টের টুইটে।
টুইটারের এ পদক্ষেপের পর ট্রাম্প, হুমকি দিয়ে বসেন সামাজিকমাধ্যম বন্ধ করার ব্যাপারে।
স আহমেদ ইফতেখার

 


আরো সংবাদ

এবার আল-আকসা উদ্ধারের ঘোষণা এরদোগানের(ভিডিও) (৬৮৪৪)ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরে সেব্রেনিৎসা স্টাইলে গণহত্যার আশঙ্কা! (৪৪১৫)রাম ভারতীয়ই নন, অযোধ্যা নেপালে (৪২৭৬)বাংলাদেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৯০ হাজার ছাড়ালো (৪১৪৩)তুরস্ক-মিশরের পাল্টাপাল্টি হুঙ্কারে ভয়াবহ সংঘাতের পথে লিবিয়া (৪০৪৪)ডিজির অনুরোধে রিজেন্টের সাথে চুক্তির অনুষ্ঠানে গিয়ে ছিলাম : স্বাস্থ্যমন্ত্রী (৩৯৭৬)রাম ভারতীয়ই নন, অযোধ্য নেপালে (৩৬৬০)রামকে নিয়ে নেপালের প্রধানমন্ত্রীর দাবিতে ভারতীয়দের প্রতিক্রিয়া (৩৬১৫)তিনবার সংজ্ঞা পরিবর্তনের পর বাড়ছে সুস্থতার হার (৩৪৬৬)ইসরাইলিরা যে ঘোষণায় প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ হয়ে আগুন দিল তুরস্কের পতাকায় (৩০৮২)